মেইন ম্যেনু

সমকামী ক্লাবে হামলার দায় স্বীকার আইএসের

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় সমকামী নাইটক্লাবে বন্দুকধারীর হামলার দায় স্বীকার করছে ইসলামিক স্টেট গোষ্ঠী (আইএস) জঙ্গিগোষ্ঠী। স্থানীয় সময় শনিবার মধ্যরাতের ওই হামলায় নিহত হয়েছে ৫০ জন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা একে সন্ত্রাস এবং বিদ্বেষপূর্ণ কাজ বলে আখ্যায়িত করে বলেন, “বন্দুকধারীর কাছে একটি হ্যান্ডগান এবং একটি অ্যাসল্ট রাইফেল ছিল। এতেই প্রমাণ হয় কত সহজেই বন্দুকের ব্যবহার করে এখানে স্কুল বা আবাসিক এলাকা বা নাইটক্লাবে হামলা করা যায়।”

এই ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটন এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্প মুসলিম মৌলবাদীদের দায়ী না করায় প্রেসিডেন্ট ওবামার পদত্যাগ দাবি করেছেন।

গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই-এর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা রন হপার জানিয়েছেন, হামলাকারী ওমর মতিন সম্পর্কে ২০১৩ এবং ২০১৪ সালে তদন্ত করা হয়েছিল। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে বন্দুকধারীর হামলায় এত বেশি হতাহতের ঘটনা এর আগে ঘটেনি।

ফ্লোরিডায় সমকামীদের নাইটক্লাবে হামলার সময় হামলাকারী বন্দুকধারী পুলিশকে ফোন করে আইএসের প্রতি আনুগত্যের কথা জানিয়েছিলেন বলে জানায় গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই।

আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর তথ্য অনুযায়ী, ২৯ বছর বয়সী বন্দুকধারী তরুণের নাম ওমর মতিন। তিনি আফগান বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক। শনিবার মধ্যরাতে ফ্লোরিডার অরল্যান্ডো শহরের ‘পালস’নামের নাইটক্লাবটিতে ঢুকে গুলি চালায় মতিন। প্রায় তিন ঘণ্টা পর সেখানে ঢুকে তাকে হত্যা করে পুলিশ।