মেইন ম্যেনু

সমুদ্র উত্তাল, পায়রায় শুরু হয়নি পণ্য খালাস

দেশের তৃতীয় সমুদ্রবন্দর পায়রায় মাদার ভ্যাসেল থেকে পণ্য খালাস কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েও দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে তা ব্যাহত হচ্ছে। ১২টি লাইটার জাহাজ রবিবার দুপুরে বহির্নোঙ্গরে অবস্থানরত ৫৩ হাজার মেট্রিকটন পাথর খালাস করতে পায়রা জেটি থেকে ছেড়ে যায়। তবে বঙ্গোপসাগর প্রচণ্ড উত্তাল থাকায় গভীর সমুদ্রে যেতে পারেনি। সমুদ্র স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত পণ্য খালাস কার্যক্রম শুরু হবে না বলে জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

শনিবার গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নবনির্মিত পায়রা বন্দরের কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন। এটি দেশের তৃতীয় সমুদ্রবন্দর। এই বন্দরের কার্যক্রম পুরোদমে শুরু হলে দক্ষিণাঞ্চলের অর্থনীতির চেহারা পাল্টে যাবে বলে মনে করছেন অর্থনীতিবিদেরা।

রবিবার পায়রা বন্দর ঘুরে দেখা গেছে, বন্দরের কম্পাউন্ডের মধ্যে ইতিমধ্যে একটি প্রশাসনিক অফিস, কর্মকর্তাদের থাকার জন্য আবাসিক ভবন, নিরাপত্তা ভবন, ব্যারাক হাউস, ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট, অভ্যন্তরীণ সড়ক, শুল্কায়ন কার্যক্রম এবং বিদ্যুতায়ন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে।

জানা গেছে, দেশের মেগা প্রকল্প পদ্মা সেতু নির্মাণের ৫৩ হাজার টন পাথর নিয়ে বাংলাদেশের জলসীমানায় (হীরন পয়েন্টে) চীনা জাহাজ এমভি ফরচুন বার্ড অপেক্ষা করছে। রামনাবাদ চ্যানেলের বহির্নোঙর থেকে পণ্য খালাস করার জন্য এমভি পেয়ারা-৬, এমভি ফেকু মিয়া, এম ভি সৈনিক-৫, এম ভি নিউটেক-২, এমভি নিউটেক-৬, এম ভি মেরিন-৫, এম ভি মেরিন-৮, এম ভি টাইগার অব ইস্ট বেঙ্গল-৭, কেএসএল প্রাইড এবং কেএসএল গ্লাডিয়েটরসহ ১২টি লাইটার এবং ইন্টারন্যাশনাল সারভাইভাল জাহাজ জেটি থেকে গভীর সমুদ্রের উদ্দেশে রওনা করে রবিবার দুপুর আড়াইটার দিকে। জাহাজগুলো সাগরে কিছুদূর অগ্রসর হলেও প্রচণ্ড ঢেউ থাকায় পোর্ট টার্মিনালে ফিরে আসে বলে জানায় বন্দর কর্তৃপক্ষ।

পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের সচিব মুহাম্মদ রেজাউল কবীর সাংবাদিকদের বলেন, পণ্য খালাস কার্যক্রম শুরু হলে বন্দরটি সচল হয়ে উঠবে।

পোর্টের হারবাল মাস্টার ফরিদ উদ্দিন জানান, আবহওয়া ভালো হলেই লাইটার জাহাজগুলো ভ্যাসেল জাহাজের উদ্দেশে রওনা করবে।

অপরদিকে মালয়েশিয়া থেকে ১২ হাজার ৫০০ মেট্রিকটন চুনা পাথর নিয়ে এফবি বীজ জাহাজ সাগরের হীরন পয়েন্টে অবস্থান নিয়েছে। ওই জাহাজের রবিবার এক হাজার ৫ ০০ মেট্রিকটন চুনা পাথর খালাসের কথা ছিল। কিন্তু দুর্যোগপূর্ণ আবহওয়ার কারণে তাও করতে পারেনি।