মেইন ম্যেনু

সরাসরি দেখুন ব্লাডমুন

আজকের সন্ধ্যাটা অন্যরকম। একে তো আজ পূর্ণিমা। অন্যদিকে আজ পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণও। গোধূলির সময়টা কেটে গেলেই আকাশে দেখা মিলবে ব্লাডমুন কিংবা রক্তিম চাঁদের। গত ৩০ বছরেরও বেশি সময়ের ইতিহাসে ঘটতে চলেছে বিরল এক ঘটনা।

এই প্রথমবারের মতো পৃথিবীবাসী উপভোগ করবে চাঁদের দৈত্যাকায় রক্তিম-লাল রূপ এবং পূর্ণ-চন্দ্রগ্রহণ। সোনায় সোহাগা ছাড়া আর কী?

আজ ২৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের সময় সন্ধ্যা ৭টা ৪১ থেকে রাত ৯টা ৩৭ মিনিট পর্যন্ত চলবে চন্দ্রগ্রহণ।

পূর্ণ চন্দ্র গ্রহণ ঢেকে দেবে চাঁদের আকাশকে। প্রাকৃতিক বিস্ময়কর ও বিরল ৭২ মিনিটের এই ঘটনা উপভোগ করতে যারা ব্যর্থ হবে, তাদের অপেক্ষা করতে হবে এক দীর্ঘ সময়। কারণ, এই অনন্য ঘটনা ২০৩৩ সালে ফের ঘটবে। এর আগে এরকম দৈত্যাকায় রক্তিম পূর্ণ-চন্দ্রগ্রহণের ঘটনা ঘটেছিল ১৯৮২ সালে। গত একশো বছরে এই সুযোগ পাওয়া গিয়েছিলো মাত্র পাঁচ বার।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক মহাকাশ গবেষণাকারী প্রতিষ্ঠান নাসার ওয়বসাইটে এ সংক্রান্ত বিস্তারিত খবর প্রকাশ করা হয়েছে। এই বিরল ঘটনাকে স্মরণীয় করে রাখতে নাসার পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে ব্যাপক প্রস্তুতি । এ উপলক্ষে নাসা টিভি লাইভ-ফিড সম্প্রচার করবে।

তবে পৃথিবীর সব জায়গা থেকে এই ঘটনা দেখা না গেলেও উত্তর আমেরিকা, দক্ষিণ আমেরিকা, আটলান্টিক মহাসাগর, গ্রিনল্যান্ড, ইউরোপ, আফ্রিকা, ও মধ্যপ্রাচ্য থেকে এই উত্তেজনাকর মুহূর্ত অবলোকন করা যাবে।

প্রতি মাসেই চাঁদ তাঁর উপবৃত্তাকার কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করতে করতে পৃথিবীর কাছাকাছি চলে আসে। কিন্ত, পূর্ণ-চাঁদ হয়ে পৃথিবীর কাছে আসা তো বিরল ঘটনা ছাড়া আর কী? তাই তো জোতির্বিজ্ঞানীদের ভাষায় এ এক প্রাকৃতিক আশীর্বাদ।

আমরা সত্যি সৌভাগ্যবান। এই দিনে চাঁদ তাঁর প্রকৃত পরিধি অপেক্ষা ১৪ শতাংশ বড় হয়ে আমাদের কাছে দেখা দেবে। আর একই সময়ে পৃথিবী চন্দ্র ও সূর্যের মাঝামাঝি অবস্থানে থেকে পূর্ণ চন্দ্র-গ্রহণের সৃষ্টি করবে।

তবে চন্দ্রগ্রহণের এই দৃশ্য ঢাকা থেকে দেখতে পাওয়া যাবে না। তবে নাসা টিভিসহ কয়েকটি ওয়েবসাইট লাইভ ফিড প্রদান করবে। এসব ওয়েবসাইটে চোখ রাখলে দেখা যাবে চন্দ্রগ্রহণ এবং ব্লাডমুনের বিরল দৃশ্য।

ব্লাড মুন যেভাবে হয়। দেখুন ইউটিউবে:



« (পূর্বের সংবাদ)