মেইন ম্যেনু

সাংবাদিকদের জন্য সবচেয়ে বিপজ্জনক যে স্থান

পাকিস্তানে দিন দিন সাংবাদিক হত্যা এবং সংবাদ অফিসে হামলার ঘটনা বেড়েই চলেছে। এ কারণে পাকিস্তানকে বিশ্বে সাংবাদিকদের জন্য সবচেয়ে বিপজ্জনক দেশ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। বুধবার দেশটির স্থানীয় একটি পত্রিকা এ তথ্য জানিয়েছে।

ডেইলি টাইমস এর সম্পাদকীয় পাতায় ‘অবরুদ্ধ সংবাদমাধ্যম’ ( মিডিয়া আন্ডার সিজ) নামের শিরোনামে বলা হয়েছে, লাহোর শহরে প্রায় ৪২টির মত টেলিভিশন চ্যানেলের কার্যালয়ে হামলা চালিয়েছে অজ্ঞাত বন্দুকধারীরা। এতে চরম আশঙ্কায় দিন কাটাচ্ছে সাংবাদিকরা। এদের মধ্যে অনেকেই সন্ত্রাসীদের নানা ধরনের হুমকির কারণে ভয় ও আতঙ্কে জীবন-যাপন করছেন। এছাড়া এসব হামলায় জড়িতদের সম্পর্কে তেমন কোনো তথ্যও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

লাহোর ছাড়াও ফয়সালাবাদ এবং করাচিতে অবস্থিত বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের কার্যালয়ে হামলা চালানো হয়েছে। এধরনের হামলার কারণে সংবাদমাধ্যম এবং গণমাধ্যম তাদের স্বাধীণতা হারাচ্ছে। আর এতে করে হামলাকারীরা খুব সহজেই নিজেদের লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারছে।

এসব হামলায় সাংবাদিক এবং রাজনীতিবিদরা ব্যাপক নিন্দা জানিয়েছেন। তারা যত দ্রুত সম্ভব দোষীদের আটকের দাবি জানিয়েছেন।

পাকিস্তানে সাংবাদিকতা মানেই এক ধরনের চ্যালেঞ্জ। সম্প্রতি সংবাদ কাজের সঙ্গে জড়িত ভবনগুলোকে হামলাকারীদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়েছে। ওই পত্রিকাটি জানিয়েছে, দেশের ভেতরে এবং বাইরে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দায়িত্ব সরকারেরই। কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছে পত্রিকাটি।

ওই পত্রিকায় বলা হয়েছে, সাংবাদিক হত্যা বেড়ে যাওয়ায় পাকিস্তান ইতোমধ্যেই একটি কুখ্যাত দেশে পরিণত হয়েছে। আর বিশ্বের সাংবাদিকদের কাছে এটি সবচেয়ে বিপজ্জনক দেশ হিসেবে সাব্যস্ত হয়েছে।

ওই পত্রিকায় আরো বলা হয়েছে, শুধুমাত্র সরকার নয় বরং সংবাদ মাধ্যমগুলোকেও সাংবাদিকদের নিরাপত্তার বিষয়ে শক্তিশালী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।