মেইন ম্যেনু

সাংবাদিকের ওপর চড়াও এটিএম জালিয়াতির হোতা !

কয়েকটি বেসরকারি ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে টাকা জালিয়াত চক্রের মূল হোতা বিদেশি নাগরিক পিওতর সেজেফার মাজুরেক আদালত চত্বরে হাতকড়া পরা অবস্থায় এক সাংবাদিকের ওপর চড়াও হয়েছেন। এ সময় তিনি ওই সাংবাদিকের মোবাইল ফোনও ভেঙে ফেলেছেন।

সোমবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের এজলাসে নেয়ার সময় এই বিদেশি এই কাণ্ড ঘটান বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

জানা যায়, ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম ওই বিদেশিসহ চার আসামিকে আবারও পাঁচদিনের রিমান্ডে নেয়ার আদেশ দেন। রিমান্ড আদেশ দেয়ার পর আদালতের এজলাস থেকে আসামিদের নামিয়ে বাইরে নেয়া হচ্ছিল। এ সময় পিওতরের ছবি তোলার চেষ্টা করছিলেন ঢাকা ট্রিবিউনের আদালত প্রতিবেদক সানাউল ইসলাম। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওই সাংবাদিকের ওপর চড়াও হন পিওতর। মারধর করার পাশাপাশি সাংবাদিকের মোবাইল ফোনটিও ভেঙে ফেলেন ওই আসামি। পরে পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

মারধরের শিকার সাংবাদিক এ বিষয়ে মৌখিকভাবে অভিযোগ করেন ঢাকা মহানগর পুলিশের অপরাধ ও তথ্য বিভাগের উপকমিশনার এ এইচ এম কামরুজ্জামানের কাছে। উপকমিশনার বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানান।

আইনজীবী শরীফুল ইসলাম উজ্জ্বল বলেন, গ্রেপ্তার হওয়ার পর পিওতরের দুই হাতে হাতকড়া থাকলেও সোমবার আদালতে তা ছিল এক হাতে। পুলিশের অবহেলার কারণে এ ঘটনা ঘটেছে। তার দুই হাতে হ্যান্ডকাপ থাকলে এ ঘটনা ঘটতে পারত না।”

আসামি পিওতরের পক্ষের কনিষ্ঠ আইনজীবী রুনা লায়লা এরজন্য সাংবাদিকদের কাছে দুঃখ প্রকাশ করেছেন।