মেইন ম্যেনু

সাতক্ষীরার ডিসিকে বিদায় সংবর্ধনা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসানকে বিদায় সংবর্ধনা দিয়েছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠা।

বিদায়ী জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসানকে ছফুরননেছা মহিলা কলেজের সংবর্ধনা
বিদায়ী জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসানকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। শনিবার বিকালে জেলা প্রশাসকের বাংলোয় বিদায়ী জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসানকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। এ সময় বিদায়ী জেলা প্রশাসকের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট ও ফুলেল শুভেচ্ছা প্রদান করেন ছফুরননেছা মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আশরাফুন্নাহার।
এসময় বিদায়ী জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান বলেন, ‘ছফুরননেছা মহিলা কলেজ এ জেলার একটি অন্যতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আমাদের নতুন প্রজন্মকে দেশের আধুনিক নির্মাতা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য এ কলেজের শিক্ষকদের ভূমিকা রাখতে হবে। নারী শিক্ষার্থীদের দেশ গড়ার কারিগর হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।’
এসময় উপস্থিত ছিলেন এসএম সেলিম আক্তার, ফারহা দিবা খান সাথী, এসএম শফি কামাল, মোবাশ্বেরুল হক জ্যোতি, শিখা রাহা ও মোঃ সাহাদাত হোসেন।

জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অঙ্গণের সংবর্ধনায় জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান
সাতক্ষীরাসাতক্ষীরা জেলা শিল্পকলা একাডেমি ও জেলা সাংস্কৃতিক পরিষদের যৌথ আয়োজনে বিদায়ী জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসানকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। শনিবার বিকালে জেলা শিল্পকলা একাডেমির হলরুমে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এ.এফ.এম এহতেশামুল হকের সভাপতি প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিদায়ী জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসান। এ সময় বিদায়ী জেলা প্রশাসকের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট, ফুলেল শুভেচ্ছা ও গলায় উত্তরীয় পরিয়ে দেওয়া হয়। একই সাথে বিভিন্ন সাহিত্য সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর মোদাচ্ছের হোসেন, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ্ আব্দুল সাদী। এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন প্রফেসর আব্দুল হামিদ, শুভ্র আহমেদ, সহিদুর রহমান, আবু আফফান রোজ বাবু, শামিমা পারভীন রতœা, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সদস্য সচিব মোশফিকুর রহমান মিল্টন প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক শেখ নিজাম উদ্দীন, রেড ক্রিসেন্ট ইউনিট সাতক্ষীরার সেক্রেটারী শেখ নুরুল হক, পল্টু বাশার, মাসিক সাহিত্যপাতার সম্পাদক ও দৈনিক কাফেলার স্টাফ রিপোর্টার আব্দুর রহমানসহ সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক অঙ্গণের নেতৃবৃন্দ। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন হেনরী সরদার ও মোশফিকুর রহমান মিল্টন।