মেইন ম্যেনু

সানি-তাসকিনের ব্যাপারে ‘অন্ধকারে’ বিসিবি

অপেক্ষার প্রহর শেষই হচ্ছে না। যতই আত্মবিশ্বাস থাক, মনের কোনে অজানা একটা খচখচানি ঠিকই থেকে যাচ্ছে। কবে আসবে সানি-তাসকিনের বোলিং অ্যাকশনের ফলাফল? বিসিবি বলছে, ফলাফলের বিষয়ে এখনো তারা অন্ধকারে। আইসিসি এখনো কিছুই জানায়নি।

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সানি এবং তাসকিনের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন মাঠের দুই আম্পায়ার। এরপরই তাদের পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়।

১২ মার্চ পরীক্ষা দেন স্পিনার সানি। আর ১৪ মার্চ তাসকিন।

ফলাফল প্রকাশের নির্দিষ্ট কোনো সময় নেই। তবে আইসিসি থেকে চেষ্টা করা হয় দ্রুততম সময়ের মধ্যে ফলাফলের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট বোর্ডকে জানানোর।

ধর্মশালায় ফোন করে জানা গেল, ১৯ মার্চ ফলাফল হাতে আসবে বলে ধারণা করছে বাংলাদেশ দল।

সানি এবং তাসকিন বাংলাদেশ দলের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দুই সদস্য। সুপার টেনের প্রথম ম্যাচে অন্য বোলাররা যখন হাত খুলে রান দিয়ে উইকেটহীন থেকেছেন, তখনো ঠিকই দুজনে পাকিস্তানকে চেপে ধরার চেষ্টা করেন। ৩২ রান খরচায় তাসকিন নেন দুই উইকেট। ৩৪ রান দিয়ে সানি দুটি।

দলের সঙ্গে থাকা কর্মকর্তারা বলছেন, অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে এই দুজন খেলতে পারবেন কি না, তা তারা এখনো বলতে পারছেন না। ২১ মার্চ অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

সানি-তাসকিন দুজনেই অবশ্য আত্মবিশ্বাসী। দুজনের বিশ্বাস, তাদের অ্যাকশনে কোনো সমস্যা নেই।

সানি দুইবছর ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছেন। আর ২০১২ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ থেকে খেলছেন তাসকিন।