মেইন ম্যেনু

সানি সম্পর্কে যা বললেন তার নায়কেরা

পর্নো তারকা হিসেবে পরিচিত হওয়ায় সানি লিওনকে নিয়ে বলিউডে কম বিতর্ক হয়নি। বলিউডে তার কাজ করাটা খুব একটা সহজ ব্যাপার ছিল না পর্নো তারকা হওয়ায়। তারপরও বলিউডে অভিনেত্রী হিসেবে চেষ্টার ক্রটি রাখেননি সানি। ইতিমধ্যে বলিউডে তার ক্যারিয়ার প্রায় তিন বছর হতে চলল।

তবে বলিউডে এখন পর্যন্ত শীর্ষ অভিনেতাদের সঙ্গে সিনেমা করতে না পারলেও সানি হিট। পুরুষহৃদয়ে রাজ করেন তিনি। এবার জেনে নিন সানির সঙ্গে এখন পর্যন্ত যারা অভিনয় করেছেন, তাদের কী অভিমত সানিকে নিয়ে।

রাম কাপুর

কুছ কুছ লোচা হ্যায় সিনেমায় রাম কাপুরের কো-স্টার ছিলেন সানি লিয়ন। বয়সের ফারাক বিস্তর। কিন্তু তবু সানিতে মুগ্ধ রাম। তিনি জানিয়েছেন, ‘বাস্তবে সানি টমবয়। যখন আমি শুটিংয়ে যাই, আমি জানতাম আমাকে একজন হট সুন্দরীর সঙ্গে কাজ করতে হবে। কিন্তু আমি স্বপ্নেও ভাবিনি আমরা সেটে এত মজা করতে পারব। কেউ যদি ওর লেগ পুলিং করত, তাতে ওর কোনো আপত্তি থাকত না। বরং সানি নিজেই উলটে তার লেগ পুলিং করতেন। আমি সাধারণত যে সব মজা ছেলেদের সঙ্গে করি, সেগুলো অনায়াসে ওর সঙ্গে করতে পারতাম।’

রজনীশ দুগ্গল

রাখি সাওয়ন্ত থেকে সেলিনা জেটলি। সানিকে নিয়ে অনেকেই অনেক কটু কথা বলেছেন। কিন্তু সানি জানতেন, তাকে বলিউডে মাটি পেতে গেলে এ সব গায়ে মাখলে চলবে না। তাই করেছেন তিনি। তাই তো তার কো-স্টার রজনীশ দুগ্গলও সানিকে ফুল মার্কস দিলেন। বললেন, ‘সানি খুব হার্ডওয়ার্কিং। যে কোনো সিনের ডিটেলিংয়ের ওপর তিনি নজর দেন বেশি।’ এক পহেলি লীলা সিনেমার পর বর্তমানে বেইমান লাভ সিনেমায় তিনি আবার সানির সঙ্গে অভিনয় করছেন। এটি একটি ডার্ক রোম্যান্স সিনেমা। কিন্তু তাদের কোনো সমস্যাই হচ্ছে না।

রণদীপ হুডা

সানির প্রথম সিনেমা জিসম ২-এ নায়ক ছিলেন রণদীপ হুডা। তিনিও জানিয়েছেন, ডেডিকেশন নিয়ে সানির তুলনা হয় না। আর সেটেও তিনি বেশ প্রাণোচ্ছল থাকতেন।

অরুণোদয় সিং

জিসম ২-র আরও একজন অভিনেতা ছিলেন অরুণোদয় সিং। হতে পারে সানি একসময় একজন অ্যাডাল্ট স্টার ছিলেন। কিন্তু তার কাছে সানি অন্যদের মতোই একজন কো-স্টার মাত্র। শুটিংয়ের সময় তাদের কাজ ছিল ডিরেক্টরের নির্দেশ মেনে কাজ করে যাওয়া। এর বেশি কিছু নয়। অরণোদয় সিং বলেন, সানি শুটিংয়ের সময় তার অভিনয়, সংলাপ আর ইমোশনে নজর দিতেন। অন্য কোনো দিকে সানি ফিরেও চাইতেন না।

তুষার কাপুর

ইন্ডাস্টির টপ অ্যাক্ট্রেস কে? সানি লিয়ন। অন্তত তুষার কাপুর মনে করেন তেমনটাই। সানির সঙ্গে মস্তিজ়াদে সিনেমা করতে গিয়ে তা বেশ বুঝতে পেরেছেন তিনি। সানির প্রশংসায় পঞ্চমুখ তুষার। ভালো অভিনেত্রী তো বটেই। সানি যে মানুষ হিসেবেও ষোলো আনা খাঁটি, তাও জানিয়েছেন তিনি।

জয় ভানুশালি

কয়েকদিন আগেই শোনা গিয়েছিল, বলিউডের কোনো এক সুপারস্টার নাকি সানির সঙ্গে সিনেমা করতে ভয় পাচ্ছেন। তার ভয়, সানি লিয়নের সঙ্গে সিনেমা করলে তার দাম্পত্য জীবনে অশান্তি আসতে পারে। কিন্তু জয় ভানুশালির জীবনে তেমন কিছু হয়নি। জয় জানিয়েছেন, এক পহেলি লীলা সিনেমায় তিনি ও সানি কয়েকটি ক্লোজ় সিন করেছেন। কিন্তু তা নিয়ে তার স্ত্রী মাহির কখনো কোনো আপত্তি হয়নি।

শুধু তাই নয়, জয় আরো বলেন, ‘যদি কখনো কোনো মানুষ তার স্ত্রীর দিকে নজর না দেন, তাহলে তার স্ত্রী ইনসিকিওর ফিল করতে পারেন।’ তবে কী জয় ভানুশালি সেই নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সুপারস্টারকে কোনো ইঙ্গিত করলেন?