মেইন ম্যেনু

সাবধান! এবার বাজারে আসছে গুঁড়ো ডিম!! কীভাবে চিনবেন জেনে নিন সহজ কৌশল…

গুঁড়ো দুধ খেয়ে আমরা সবাই কম বেশি অভ্যস্ত। তাই বলে কৃত্রিম গুঁড়ো ডিম !

ডিম ছাড়া সকালের নাশতাই মাটি।কিন্তু বাজারে ডিমের দাম বৃদ্ধি, তাই চাহিদা মেটাতে বাজারে এসেছে কৃত্রিম পাউডার ডিম। হালি ধরে ডিম কেনা আর নয়।

এবার হয়তো অনেকেই কেজিতে বা কৃত্রিম পাউডার ডিমের কৌটা কিনতে চাইবেন। স্বাদে অবিকল হাঁস-মুরগির ডিমের মতো হলেও এটা আসলে সাদা গুঁড়া পাউডার। কৃত্রিম এই পাউডার ডিম তৈরি হয়েছে মটরশুঁটি, শিম প্রভৃতি থেকে। ডেইলি মেইল।

‘বিয়ন্ড এগস’ নামে এ পাউডার ডিম মঙ্গলবার থেকে বিক্রি শুরু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে। শিগগিরই এ ডিম বিশ্বের অন্য দেশগুলোতে রফতানির পরিকল্পনা করছেন ‘বিয়ন্ড এগস’-এর উদ্যোক্তা জস ট্রেটরিক।

উদ্ভিদ থেকে ডিম তৈরির এই উদ্যোগ ট্রেটরিককে সাহায্য করেছেন পেপলের প্রতিষ্ঠাতা পিটার থায়েল, মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস, সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ার প্রমুখ। জস ট্রেটরিক কৃত্রিম ডিম সম্পর্কে জানান, বিল গেটস ও পিটার থায়েলসহ অনেকেই কৃত্রিম ডিমের তৈরি বিস্কুট খেয়ে দেখেছেন। আসল ডিমের সঙ্গে এর কোনো তফাৎ ধরতে পারেননি তারা। এতে কোনো কোলেস্টেরল নেই। তুলনামূলকভাবে সাশ্রয়ী দামে পাওয়া যাবে এ পাউডার ডিম।

ট্রেটরিকস জানিয়েছে, ‘খাদ্যশিল্পে নতুন উদ্ভাবন শুরু হয়ে গেছে। হাঁস, মুরগি তথা প্রাণীর ওপর থেকে নির্ভরতা কমাতে এ উদ্ভাবনের বিকল্প নেই। তবে এ ক্ষেত্রে আরও গবেষণা ও কাজ বাকি বলে মনে করছেন তিনি। উন্নয়নশীল দেশগুলোতে পুষ্টিকর খাবারের তালিকায় এ ধরনের কৃত্রিম ডিম যুক্ত করা যায় কি-না তা নিয়ে ভাবতে শুরু করেছেন ট্রেটরিক।