মেইন ম্যেনু

সাবধান! ভুলেও এই ছবিগুলো ঘরে ঝুলাবেন না, না হলে বিপদ কিন্তু নিশ্চিত…

দেওয়ালে টাঙানো ছবি প্রভাবিত করতে পারে আপনার জীবনকে। এমনকী, ঘরে টাঙানো ছবির প্রভাবে দাম্পত্য সম্পর্কও টালমাটাল হতে পারে।

ছবি কার না ভাল লাগে! কিন্তু তাই বলে যে কোনও ছবি বা পোন্টিং যে কোনও ঘরে টাঙানো মোটেই আপনার শিল্পরুচির পরিচায় দেয় না। যে পেন্টিংয়ের বেডরুমে দেওয়াল আলো করার কথা, তাকে বাথরুমে লাগালে কেউ আপনার রুচিকে বাহবা দেবে না। রুচির প্রশ্নের ঊর্ধ্বে গিয়ে ছবি টাঙানোর বিষয়ে কিছু সাবধানবাণী শোনায় বাস্তুশাস্ত্র। বাস্তুর হিসেব অনুযায়ী, দেওয়ালে টাঙানো ছবি প্রভাবিত করতে পারে আপনার জীবনকে।

এমনকী, ঘরে টাঙানো ছবির প্রভাবে দাম্পত্য সম্পর্কও টালমাটাল হতে পারে বলে জানায় বাস্তু। মনোবিদরাও এই অধিবিদ্যাকে পাত্তা দেন না বটে, তবে তাঁরাও একথা বলে থাকেন যে, ঘরে টাঙানো পেন্টিং বাসিন্দার মনে প্রভাব বিস্তার করে। সেই সূত্রে সম্পর্ক প্রভাবিত হওয়াটা মোটেই অস্বাভাবিক নয়।

দেখা যেতে পারে, ঠিক কী জাতীয় পেন্টিংকে ঘরে টাঙাতে নিষেধ করছে বাস্তু এবং মনোবিদ্যা।

image (6)

• টু-মাস্ক পেন্টিং— হাসি-কান্না, ট্র্যাজেডি-কমেডির চিরায়ত মোটিফের পেন্টিং অনেকের কাছেই আদরের। কিন্তু এমন ছবি নাকি দাম্পত্য সম্পর্কের মধ্যে ছদ্ম আবরণকে আরোপ করে। দম্পতিদের পারস্পরিক বিশ্বাসকে নষ্ট করে। দাম্পত্য তিক্ততায় পর্যবসিত হয়।

image (5)

• বহুগামিতার ইঙ্গিতবাহী পেন্টিং— এমন পেন্টিং, যাতে একজন পুরুষের সঙ্গে একাধিক নারীর সম্পর্কের ইঙ্গিত রয়েছে, ঘরে রাখা বেশ ঝুঁকিপূর্ণ। বাস্তুর মতে, এই ধরনের ছবিও দাম্পত্য-বিশ্বস্ততাকে ক্ষতিগ্রস্ত করে।

image (4)

• যুদ্ধ বা মৃতদেহ সম্বলিত পেন্টিং— যুদ্ধ, রক্ত, মৃতদেহ, কামান, বন্দুক, দুর্দশাগ্রস্ত মানুষ ইত্যাদির ছবি শোওয়ার ঘরে টাঙানো বিধেয় নয়। এমন ছবি ঘরের বাসিন্দাদের আবচেতনে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। দাম্পত্য সম্পর্কে দেখা দেয় নিরাপত্তার অভাব।

image (3)

• শিকার-সংক্রান্ত পেন্টিং— শিকারের দৃশ্য মূলত হিংসাকে ব্যক্ত করে। এমন দৃশ্য দাম্পত্য সম্পর্কেও হিংসার আমদানি করতে পারে হলে মনে করেন বাস্তু-বিশেষজ্ঞরা। মনোবিদরাও একই মত পোষণ করেন।এবেলা