মেইন ম্যেনু

সাবধান! যে পাঁচ ধরনের পর্ন দেখলে জেল নিশ্চিত

নিষিদ্ধ হোক বা না হোক পর্ন সিনেমা বিশ্বজুড়েই দেখা হয়। কোথাও প্রকাশ্যে, বেশিরভাগই জায়গাতেই লুকিয়ে, আড়ালেআবডালে, একান্তে। কিন্তু জানেন কী এমন কিছু ধরনের পর্ন সিনেমা আছে যা বিশ্বের সর্বত্র নিষিদ্ধ। এমন কিছু প্রকৃতির পর্ন সিনেমা।

১) চাইল্ড পর্ন–খুব সাবধান। ভুলেও চাইল্ড পর্ন বা শিশু বা নাবালকদের নিয়ে তৈরি করা পর্নগ্রাফিক সিনেমা দেখতে যাবেন না। আমেরিকা, ইউরোপের চাইল্ড পর্ন দেখার বড় শাস্তি হয়। বিশ্বজুড়েই এখন চাইল্ড পর্ন রোখার জন্য কড়া আইন আসছে।

২) প্রতিশোধ পর্ন– প্রেমে প্রস্তাব খারিজ করে দিয়েছে। কিংবা কর্মক্ষেত্রে মনকষাকষি। ওমনি কোনও ব্যক্তিগত মুহূর্তে ছবি বা ভিডিও ফাঁস করে পর্ন বানানো। এইগুলোকেই ধরা হয় রিভেঞ্জ পর্ন বা প্রতিশোধ পর্ন হিসেবে। রিভেঞ্জ পর্নের জন্য বড় শাস্তির বিধান রয়েছে বিশ্বের নানা দেশে। ভারতেও কড়া শাস্তি। ভুলেও মাথাগরম করে ‘রিভেঞ্জ পর্ন’ বানিয়ে প্রতিশোধ তুলতে যাবেন না।

৩) এডস পর্ন-বিকৃত মানসিকতার চরমে। এডস রোগে আক্রান্ত মানুষদের নিয়ে এমন পর্ন বানানো হয়। খুব কম দেশে তৈরি হলেও এডস পর্নের বিরুদ্ধে কড়া নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

৪) অসুস্থ পর্ন–রোগী অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। সেই রোগীকে নিয়ে চলছে পর্ন সিনেমা। একেবারে নিষিদ্ধ এই ধরনের পর্ন সিনেমা।

৫) ধর্মীয় স্থানে- একেবারে ক্যাথালিক চার্চে পর্ন সিনেমার শ্যুটিং করে ক দিন আগেই জেল হল ইংল্যান্ডে। তারপর শুরু হয়েছে কড়া আইন। ধর্মীয় স্থানে কোনও মতেই পর্ন সিনেমার শ্যুটিং নয়।