মেইন ম্যেনু

সাভারের ছয়টি পোশাক কারখানার শ্রমিকদের ঈদে বাড়ি ফেরা অনিশ্চিত

টিপু সুলতান (রবিন), সাভার প্রতিনিধি : বকেয়া বেতন ও ঈদ বোনাসের দাবিতে সাভারও আশুলিয়ায় ছয়টি পোশক কারখানার ভিতরে অবস্থান নিয়েছে শ্রমিকরা। বেতন ও ঈদ বোনাস না পাওয়ায় ওই ছয়টি পোশাক কারখানার শ্রমিকদের ঈদে বাড়ি ফেরা অনিশিচত।

পোশাক কারখানা গুলো হলো সাভারের উলাইলে প্রতীক এ্যাপারেলস,রাজাশন এলাকায় মারহাবা টেক্সটাইল,ছায়াবিথী এলাকায় পিয়াসা গার্মেন্টস,কলমার জিনজিরা এলাকায় সিপিএম ও ঢাকা আরিচা মহাসড়কের পাশে ডগরমমোড়া এলাকায় জালাল আহমেদ নীট কম্পোজিট লিমিটেড।

শ্রমিকরা জানায় সকাল থেকে ওই ছয়টি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বকেয়া কয়েক মাসের বেতন ও ঈদ বোনাসের দাবিতে সকালে কারখানায় প্রবেশ করে বিক্ষোভ মিছিল করে কারখানার ভিতরে অবস্থান ধর্মঘট পালন শুরু করে। ঈদকে সামনে রেখে বকেয়া বেতন ও ঈদ বোনাস না পাওয়ায় ওই পাঁচটি পোশাক কারখানার কয়েক হাজার শ্রমিকদের ঘরে ফিরে পরিবারের সাথে ঈদ করা অনিশিচত।

এদিকে ডগরমোড়া এলাকায় জালাল আহমেদ নীট কম্পোজিট কারখানার মালিক হারুন মিয়া পলাতক রয়েছেন। বিভিন্ন স্থানেও খোঁজাখুজি করেও পুলিশ তার সন্ধান পায়নি।বকেয়া বেতন ও ঈদ বোনাস না পাওয়ায় কারখানার ভিতরে অবস্থান ধর্মঘট পালন করবেন বলে জানিয়েছে শ্রমিকরা।

এবিষয়ে শিল্প পুলিশ ১-এর পরিচালক মোস্তাফিজার রহমান বলেন শ্রমিকদের বকেয়া বেতন ও ঈদ বোনাস দেওয়ার ব্যাপারে আমরা মালিক পক্ষের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি।

অন্যদিকে আশুলিয়ার বুড়ির বাজার এলাকায় একটি তৈরি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা জুন মাসের পূর্ণ বেতনের দাবিতে কারখানার ভিতরে ও বাহির অবস্থান নিয়ে কর্মবিরতী পালন শুরু করেছে।

সোমবার সকাল থেকে শিল্পাঞ্চলের বুড়িরবাজার এলাকার মোভিভো এপ্যারেলস লিমিটেড নামের পোশাক কারখানার প্রায় ৭ শতাধিক শ্রমিক এই কর্মসূচি পালন শুরু করে।

শ্রমিকরা জানায়, ২০ রমজানের মধ্যে সরকারের তরফ থেকে জুন মাসের পূর্ণ বেতনসহ বোনাস দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হলেও মোভিভো এপ্যারেলস লিমিটেড কারখানা কর্তৃপক্ষ সেই সিদ্ধান্ত অমান্য করে জুন মাসের পূর্ণ বেতন পরিশোধ না করে ২০ দিনের বেতন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। এরই সূত্র ধরে কারখানাটির প্রায় ৭ শতাধিক শ্রমিক জুন মাসের পূর্ণ বেতন পরিশোধের দাবি জানিয়ে সকাল থেকে কারখানাটির ভিতরে ও বাহিরে অবস্থান নিয়ে কর্মবিরতী পালন শুরু করে।

এদিকে, যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ওই কারখানার সামনে অতিরিক্ত শিল্প পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এবিষয়ে শিল্প পুলিশ ১-এর পরিচালক মোস্তাফিজার রহমান বলেন শ্রমিকদের বকেয়া বেতন ও ঈদ বোনাস দেওয়ার ব্যাপারে আমরা কারখানা গুলোর মালিক পক্ষের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছি।

যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ওই কারখানার সামনে অতিরিক্ত শিল্প পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।