মেইন ম্যেনু

সাভারে আহত অবস্থায় হাসপাতালে নব্য জেএমবির অর্থদাতার মৃত্যু

টিপু সুলতান (রবিন) : সাভারের আশুলিয়ায় একটি বহুতল বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব চারের একটি চৈকশ দল। শনিবার বিকেলে বাইপাইল গাজীরচট এলাকায় আমীর হোসেন মৃধা ওরফে শাহীন মৃধার বহুতল ভবনের বাড়িতে এ অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাব। এ সময় ছয়তলা বাড়ির পাঁচতলার বারান্দার গ্রীল কেটে লাফিয়ে পড়ে আউনুল হক ওরফে আবদুর রহমান নামের এক জঙ্গি মারা গেছে।

সাভারের সাংসদ ও এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চেয়ারম্যন ড. এনামুর রহমান আব্দুর রহমানের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

আব্দুর রহমানকে নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন জেএমবির মূল অর্থদাতা বলছে র‌্যাব।

আব্দুর রহমানে স্ত্রীসহ তিন শিশু সন্তান ও ভবনটির এক কেয়ারটেকারকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে।

এঘটনায় ঢাকা-১৯ আসনের সংসদ সদস্য ডা. এনামুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি জানান, আহত জঙ্গিকে গত দুই বছর যাবৎ খুঁজে বেড়ালেও পাঁচ বার অবস্থান পরিবর্তন করায় তাকে আটক করা সম্ভব হচ্ছিলো না। তিনি র‌্যাবের তালিকাভুক্ত জঙ্গি। তবে তার অবস্থা আশংকাজনক।

র‌্যাব এর লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া উইং এর মুফতি মোহাম্মদ জানান, নব্য জেএমবির অর্থদাতা আব্দুররহমান ওরফে নাজমুল হক ওরফে আইনুল হক স্বপরিবারে আশুলিয়ায় বাসা ভাড়া নিয়ে দীর্ঘ দিনধরে বসবাস করছেন বলে গোপন সংবাদ পায় র‌্যাব।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাবএর কয়েকটিটিম শনিবার দুপুরের পর আশুলিয়ার গাজীরচট বসুন্ধরা টেক এলাকার শাহীনমৃধার ৫তলা বিশিষ্ট ভবনের আশপাশে অবস্থান নেয় তাকে আটক করতে। এসময় আব্দুর রহমান র‌্যাবেরউপস্থিতি টের পেয়ে ৫ তলার জানালার গ্রীলকেটে কৌশলে পালাতে গিয়ে নিচে পড়ে যায়। পরে র‌্যাবসদস্যরা তাকে উদ্ধার করে সাভার এএনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আইনুল হক ওরফে আব্দুর রহমান মারা যায়।

শনিবার বিকেল চারটা হতে রাত নয়টা পর্যন্ত কক্ষের ভিতরে তল্লাশী চালিয়ে বিভিন্ন কায়দায় রাখা নগদ ৩০ লাখ টাকা, বিদেশী পিস্তল, মোবাইল জ্যামার, জিহাদীসহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদী উদ্ধার করে র‌্যাব পরে রাত সাড়ে নয়টায় সংবাদ কর্মীদের নিয়ে ভবনটির পঞ্চম তলা পরিদর্শন করায় র‌্যাব এরপর প্রেস বিফিংএর মাধ্যমে শেষ করে অভিযান ।