মেইন ম্যেনু

‘সামনে মুস্তাফিজকে নিয়ে কাড়াকাড়ি লেগে যাবে’

জাতীয় দলের পর আইপিএলেও অন্যরকম কাটার বয় মুস্তাফিজ। এবারের লিগে এখন পর্যন্ত সেরা পেসার তিনিই। যেভাবে আলো ছড়াচ্ছেন তাতে আগামী আইপিএলে তাকে নিয়ে রীতিমতো কাড়াকাড়ি লেগে যাবে। মুস্তাফিজকে পেতে হুমড়ি খেয়ে পড়বে আইপিএলসহ বিশ্বের অন্যান্য লিগের ক্লাবগুলো। এমনটাই মনে করেন বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক ও তারকা ব্যাটসম্যান রকিবুল হাসান।

ঢাকাটাইমসকে তিনি বলেন, ‘আমি অর্থটাকে বড় করে দেখি না। তবে আমি নিশ্চিত, আগামী আইপিএলে ওকে পেতে হুমড়ি খেয়ে পড়বে দলগুলো। শুধু আইপিএলই নয়, বিশ্বের সব লিগ থেকেই ওর ডাক আসবে। এবং সেটা চড়া দামেই। ইতোমধ্যে কাউন্টি থেকে ডাক পেয়েছে। আসলে মুস্তাফিজ বাংলাদেশ ক্রিকেটের ব্র্যান্ড হয়ে উঠছে। ওর কারণেই বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে বেশি আগ্রহী হয়ে উঠছে বিশ্ব।’

মুস্তাফিজের বোলিংয়ে বিস্ময় প্রকাশ করে রকিবুল হাসান বলেন, ‘কী নেই ওর বোলিংয়ে! এত অল্প বয়সে বোলিংয়ে এতরকম ভ্যারিয়েশন অন্য কোনও বোলার ইতোঃপূর্বে দিতে পেরেছে বলে আমার জানা নেই। এই সময়ে তো নেই-ই। অদ্ভূত কাটার, ক্রসে সিমে সঠিক লেন্থ আর ডেথ ওভারে যেভাবে ইয়র্কার দিচ্ছে তাতে আমি বিস্মিত। সে দিন দিন উন্নতি করছে।’

কেউ কেউ মুস্তাফিজের আইপিএলে খেলাকে কিছুটা আর্লি মনে করছেন। কিন্তু রকিবুল হাসান এ ধারণাকেই উড়িয়ে দিয়ে বলেন, ‘আইপিএল খেলতে গেছে বলেই সে আরও বেশি আলোচনায় এসেছে। যে জাতীয় দলের হয়ে বিশ্বকাপ খেলতে পারে, সে আইপিএল খেলতে পারবে না কেন? আমি মনে করি আইপিএল খেলতে যাওয়া ওর জন্য দারুণ পজিটিভ। বড় বড় খেলোয়াড়দের সঙ্গে সে ড্রেসিং রুম শেয়ার করতে পেরেছে। কোচদের কাছে আসতে পেরেছে। যেটা তাকে আরো পরিপক্ক করে তুলবে।’

১০ বছর যদি মুস্তাফিজ এভাবে পারফরম্যান্স করতে পারে তাহলে সেটা হবে জাতীয় দলের জন্য অনেক বড় ব্যাপার, মনে করছেন রকিবুল হাসান। বললেন, ‘পেসারদের ইনজুরির সমস্যা থাকে। তবে আগামী ১০ বছর যদি মুস্তাফিজ সার্ভিস দিতে পারে তবে সেটা হবে দারুণ ব্যাপার। ওর দেখা দেখে আরও নতুন খেলোয়াড় তৈরি হবে।’

আইপিএলে মুস্তাফিজ খেলছেন সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের হয়ে। এ পর্যন্ত ৮ ম্যাচে ১৭.৭০ গড়ে নিয়েছেন ১০ উইকেট। ওভার প্রতি রান দিয়েছেন মাত্র ৬.২৩ করে।