মেইন ম্যেনু

সামান্য কারণেই সম্পর্ক ভেঙে যায় কেন?

সম্পর্কের ধরণ স্থান, কাল, পাত্র ভেদে ভিন্ন হতে পারে। যে সম্পর্ক নিজের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ তার সঠিক যত্ন করাটাও খুব জরুরি। আজকাল কাছের সেই সম্পর্কগুলো খুব সহজে এবং অযথা ভেঙে যেতে দেখা যায়। সামান্য কারণকে সমর্থন করে ভালোবাসার অবহেলা যেন কোনো ব্যাপারই না। একে অপরকে একা করে চলে যায় নির্দ্বিধা। কিন্তু কেন?

হঠাৎ বিশ্বাস
ব্যস্ত বাবা-মায়ের সন্তানরা উপযুক্ত পারিবারিক শিক্ষার অভাবে নিজেদের মূল্যবোধ সম্পর্কে সচেতন নয়। তারা ভালো-মন্দের যথেষ্ট বিচার করতে জানে না। তাই বর্তমান ভবিষ্যৎ না ভেবেই যাকে তাকে বিশ্বাস করে বসে। আর সেখানে দেখা দেয় বিপত্তি। সম্পর্কের কিছুদিনের মাথায় শুরু হয় নানা ভুল বোঝাবুঝি। আর তখন বাধ্য হয়ে সম্পর্ক বিচ্ছেদের দিকে এগোয়।

বিকল্প ব্যবস্থা
সম্পর্ক ভাঙনের মূল কষ্ট যে কী, তা এখন টের পাওয়ার উপায় নেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোর আদিক্ষেতায়। সেখান থেকে খারাপ লাগার মুহূর্ত গুলো সহজেই রাঙিয়ে নেয়া সম্ভব। তাছাড়া যথেষ্ট বিনোদনের ব্যবস্থা আপনার একাকিত্ব ঘোচাতে দারুণ ওস্তাদ। তাইতো অসহ্যকে সহ্য করে কোনো সম্পর্ক রাখার বিড়ম্বনা এখন আর কেউ পোহাতে চান না।

শুধু সময় কাটানো
বর্তমানে পার্ক, কফি হাউস, রেস্টুরেন্টসহ সময় কাটানোর দারুণ ব্যবস্থা আছে। এসব জায়গায় আজকালকার ছেলেমেয়েদেরা চিন্তা ভাবনা ছাড়াই গিয়ে রোমান্স নিতে আগ্রহী হচ্ছে। কিছুদিন ভালো সম্পর্ক থাকলেও পরে দেখা যায় তুচ্ছ ঘটনায় সেসব সম্পর্ক ভেঙে যাচ্ছে।

ছাড়ের মানসিকতার অভাব
বর্তমানে মানুষের সহ্য এবং ধৈর্য্য ক্ষমতা দুটোই কমে গেছে। যার ফলে কেউ কারো জন্য ছাড় দিতে রাজি নন। সুতরাং মতের মিল না হলেই সম্পর্কছেদের সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন অনেকই।

অতিরিক্ত যোগ্যতা যাচাই
একটি সম্পর্কে থেকেও নজর কিন্তু সব সময় ঘুরতে থাকে আরও যোগ্য কিছু খোঁজার পেছনে। আজকালকার যুগে এটিই নজরে পড়ে বেশ। আর একারণেই একেরপর এক সম্পর্ক ভাঙন দেখা যায়। বিষয়টি কিছুই নয় শুধুই জীবনে একজন সেরা সঙ্গী খোঁজার ঝামেলা।

শারীরিক সম্পর্ককে প্রাধান্য
মিডিয়ার কল্যাণে শারীরিক সম্পর্কের বিষয়টি এতো বেশি উন্মুক্ত হয়ে গেছে যে, অনেকেই শুধুমাত্র এই কারণেই প্রেমের সম্পর্কে জড়ান। কার্যসিদ্ধি হলেই সম্পর্ক শেষ। কার্যসিদ্ধি না হলেও অনেকক্ষেত্রে সম্পর্ক থাকে না।

ভালোবাসার অর্থ না বোঝা
প্রেম ভালোবাসার যথার্থ অর্থ কি তা অনেকেই জানেন না। একে অপরকে দেখে, চলতি স্রোতে গা ভাসিয়ে প্রেমের সম্পর্কে জড়ায়। যারা ভালোবাসাকে শুধুই সময় কাটানোর বিষয় হিসেবে নেন তাদের কাছে সম্পর্ক ভেঙে যাওয়া কোনো ব্যাপার না। আর একারণেই এতো হুটহাট সম্পর্কে ভাঙন আসে।