মেইন ম্যেনু

সারা দিনের ক্লান্তি দূর করবে ‘লবণ থেরাপি’

সারা দিন কাজ করে ঘরে ফিরে কম-বেশি সবাই ক্লান্ত অনুভব করেন। তখন শরীরে আর কোনো শক্তিই পাওয়া যায় না। কোনো কিছুই করতে ইচ্ছে করে না।

এই অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে বাথ সল্ট (গোসলে ব্যবহৃত লবণ) ব্যবহৃত করতে পারেন। শরীরে শক্তি ও উদ্দীপনা পেতে হালকা গরম পানিতে বাথ সল্ট ব্যবহার করতে পারেন।

শুধু বাথ সল্ট না ইচ্ছে করলে বিভিন্ন ধরনের সুগন্ধি ব্যবহার করতে পারেন। এতে আপনার শারীরিক ক্লান্তি দূর হবে।

গোসলে বাথ সল্ট ব্যবহারের সুবিধা: বাথ সল্ট নানাভাবে আমাদের ত্বকের উপকার করে। প্রাকৃতিক ও বিশুদ্ধ লবণে থাকা খনিজ এবং পুষ্টি উপাদান ত্বককে নরম, মসৃণ, কোমল করে।

বাথ সল্টে ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম, ব্রোমাইড এবং সোডিয়াম রয়েছে। এসব খনিজ উপাদান আমাদের লোমকূপ সহজেই শোষণ করে নেয়।

এটি আমাদের ত্বক পরিষ্কার এবং বিশুদ্ধ করে। তাছাড়া, এটি ত্বকের দীপ্তি, আস্তরণ এবং টোন বৃদ্ধি করে। ম্যাগনেসিয়াম অবসাদ এবং চাপ দূর করতে সাহায্য করে, ক্যালসিয়াম শরীরে পানি প্রবাহ স্বাভাবিক রাখে এবং হাড় গঠন করে, পটাসিয়াম ত্বকের ময়েশ্চারের ভারসাম্য রক্ষা করে, ব্রোমিড ক্লান্তি এবং পেশির ব্যথা দূর করে। সোডিয়াম তাৎপর্যপূর্ণভাবে দেহের লিম্পফ্যাটিক তরলের ভারাসাম্য রক্ষা করে।

রূপ বিশেষজ্ঞ শাহনাজ হুসাইন বলেন, বাথ সল্ট পেশির আরাম দেয় এবং অবসাদ দূর করে। এটি আমাদের দেহ এবং মনের প্রশান্তি জোগায়। ত্বকের ভিন্নতা জেনে বাথ সল্ট ব্যবহার করা উচিত।

রুপচর্চা বিষয়ক পণ্যে প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান নায়াসার প্রতিষ্ঠাতা ঈশিন আনন্দ বলেন, বাথ সল্ট কেনার আগে ত্বকের ধরনের ব্যাপারটি মাথায় রাখা উচিত। উদাহরণস্বরূপ, সংবেদনশীল বা তৈলাক্ত ত্বকের জন্য ল্যাভেন্ডার বা গোলাপ সুবাসিত বাথ সল্ট ব্যবহার করা উচিত।

শুষ্ক এবং স্তরপূর্ণ ত্বক: এই ধরনের ত্বকের জন্য ময়েশ্চারাইজার সমৃদ্ধ বাথ সল্ট ব্যবহার করা উচিত। বাদাম বা কমলা মিশ্রিত বাথ সল্ট ব্যবহার করুন।

নিস্তেজ এবং ক্লান্ত ত্বক: এই ধরনের ত্বকের জন্য রোজমেরি বা মেনথল বাথ সল্ট ব্যবহার করুন। এটি আপনার ত্বকে শীতল অনুভূতি তৈরি করবে।

বাথ সল্টের প্রকার: শারীরিক এবং মানসিক চাপ, দুশ্চিন্তা, ক্লান্তি, অবসাদ দূর করে প্রশান্তি জোগাতে বিভিন্ন ধরনের বাথ সল্ট পাওয়া যায়। যেমন: ল্যাভেন্ডার বাথ সল্ট, কমলালেবু বাথ সল্ট, ডেড সি বাথ সল্ট, গ্রিন টি বাথ সল্ট, দারুচিনি বাথ সল্ট, ইউক্যালিপ্টাস বাথ সল্ট ইত্যাদি।