মেইন ম্যেনু

সালথায় কলেজ ছাত্র আবু তালেব হত্যার রহস্য উন্মোচন

মহসিন উদ্দিন, সালথা, ফরিদপুর: ফরিদপুরের সালথা উপজেলার বল্লভদী ইউনিয়নের ভর-বল্লভদী গ্রামের কলেজ ছাত্র আবু তালেব হত্যার রহস্য উন্মোচন করেছে পুলিশ। প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে। পরের জন্য কুপ খনন করে সেই কুপে নিজেরাই পড়ে গেছে।

ফরিদপুরের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল ভাঙ্গা) মো. শামছুল হক পিপিএম (বার) জানান, ২০১৫ সালের ৮ নভেম্বার সকালে উপজেলার রায়ের বল্লভদী গ্রামে মাঠের মধ্যে থেকে ধারালো অস্ত্রের জখম অবস্থায় আবু তালেবের লাশ উদ্ধার করা হয়। আবু তালেব পাশ্ববর্তী ভর-বল্লভদী গ্রামের বাকা ফকিরের ছেলে ও মুকসুদপুর ডিগ্রি কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিল।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই আবু সালেহ ফকির বাদী হয়ে ২৯ জনের বিরুদ্ধে সালথা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। মামলার পর হত্যাকাণ্ডের মূল রহস্য উদঘাটনের জন্য নিবিড়ভাবে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। তথ্য উপাত্তের ভিত্তিতে ঘটনার সাথে জড়িত মো. মোখলেসুর রহমানকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদের পর বেরিয়ে আসে হত্যার আসল রহস্য। মোখলেসুর হত্যার বিস্তারিত বর্ননা দিয়ে আদালতে স্বীকরোক্তিমুলক জবানবন্দী প্রদান করে। এ ঘটনার মুল রহস্য উদঘান ও তদন্ত করে প্রকৃত খুনিদের নামে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, সম্প্রতি ২০১৪ সালের ৫ মে ভর-বল্লভদী গ্রামের মাওলানা আবুল বাশার মুন্সিকে মাদারীপুরের টেকেরহাট এলাকায় খুন হয়। এ ঘটনায় মোখলেসুরের পক্ষের ১১ জনের বিরুদ্ধে রাজৈর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। উক্ত মামলাটি মিমাংসা করার জন্য বাদী পক্ষের লোকজনকে নানা ভাবে চাপ সৃষ্টি করে।

এতে তারা রাজি না হলে মোখলেসুর রহমান তার সহযোগিদের নিয়ে নিজের পক্ষের সমর্থক কলেজ ছাত্র আবু তালেবকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে। পরে আবু তালেব হত্যা মামলায় আবুল বাশার মুন্সি হত্যা মামলার বাদী মো. আবু বক্কর মুন্সিসহ মামলার স্বাক্ষী ও বাদী পক্ষের লোকজনকে আসামী দেয়। যাতে আবুল বাশার মুন্সির হত্যা মামলাটি ত্বরান্নিত মিমাংসা হয়ে যায়। এসব ষড়যন্ত্রের পরেও শেষ রক্ষা পায়নি আবু তালেব হত্যার প্রকৃত আসামীরা।

পুলিশের প্রতি সন্তুষ্ট প্রকাশ করে এলাকাবাসী জানান, ফরিপুরের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. শামচুল হক পিপিএম (বার), সালথা থানার ওসি ডী.এম বেলায়েত হোসেন ও মামলার তদন্তকারী অফিসার এসআই জিল্লুর রহমান নিবিড়ভাবে তদন্ত করে ঘটনার সাথে জড়িত মোখলেসুরকে গ্রেফতারের মাধ্যমে উন্মোচিত হয় আবু তালেব হত্যার মুল রহস্য। এলাকাবাসী এই জঘন্য হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত খুনিদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবী জানিয়েছেন।