মেইন ম্যেনু

“সাহসী ভূমিকা রুখতেই সন্ত্রাসীরা পুলিশকে টার্গেট করেছে”

নাসরিন আক্তার, মুন্সীগঞ্জ থেকে : সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পুলিশের মনবল ভেঙ্গে সরকারকে দুর্বল করার জন্যই এসপি বাবুল আক্তারের স্ত্রীর উপর আঘাত এসেছে। বাবুল সন্ত্রাসীদের আতঙ্ক হয়ে উঠেছিল। সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে পুলিশের যে সাহসী ভূমিকা এটা রুখতেই সন্ত্রাসীরা পুলিশকে টার্গেট করেছে।

এ আঘাত শুধু পুলিশের উপর নয়। সোমবার বেলা ১১ টার দিকে ঢাকা মাওয়া মহাসড়কের হাসাড়া হাইওয়ে থানায় জব্দকৃত রিক্সার ব্যাটারী ধংস করার সময় তিনি আরো বলেন, সারা বাংলাদেশে আজ যে সন্ত্রাসী তৎপরতা শুরু হয়েছে তার বেশির ভাগ ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে সন্ত্রাসীরা তিনজন মিলে মোটরসাইকেলে করে এসে এক মিনিটের মধ্যে তাদের টার্গেট পুরণ করে চলে যায়। তাদের টার্গেট পরিকল্পিত।

কিন্তু একজন চালক ও একজন আরোহী থাকলে ওই আরোহীর পক্ষে এরকম সন্ত্রাসী হামলা করা সম্ভব হবেনা। তিনজন একসাথে মোটরসাইকেলে উঠলে তিনি পুলিশকে কঠোর হতে নির্দেশ দিয়ে বলেন, অনেক ক্ষেত্রে রাজনৈতিক পরিচয়ে তিনজন একসাথে মোটরসাইকেলে করে ঘুরে বেড়ায়। তারা কাউকে মানতে চায়না। এদেরকেও ছাড় দেওয়া যাবেনা। মন্ত্রী হাইওয়ে থানায় আটক কৃত সারে চারশ ব্যাটারী ধংস করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন হাইওয়ে এসপি (প্রশাসন) শাহিনা আমিন, সড়ক বিভাগের জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মামুনুর রশীদ, হাইওয়ে এডিশনাল এসপি হুসাইন মো. কবির, এএসপি সার্কেল আনোয়ার হোসেন, শ্রীনগর সার্কেল এএসপি শামসুজ্জামান, শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) দিলরুবা শারমিন, হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ ডেরিক ইষ্টেফান কুইয়া।