মেইন ম্যেনু

সিনেমার গল্পকে হার মানানো বিয়ে

এমন ঘটনা সম্ভবত শুধু সিনেমাতেই সম্ভব- ঋণের দায়ে জর্জরিত বৃদ্ধ বাবা পাওনাদারের করা মামলায় জেল খাটছেন; যেকোনো সময় আদালতের রায়ে বাবার দীর্ঘমেয়াদী সাজা হয়ে যেতে পারে; তাই বাবাকে বাঁচাতে নিজের দ্বিগুণ বয়সী পাওনাদারকে বিয়ে করতে রাজি হলেন বৃদ্ধের মেয়ে।

বাস্তবেই ঘটনাটি ঘটেছে সৌদি আরবে। আল কাসিম নামের ওই বৃদ্ধ নিজের ধার করা ৩ মিলিয়ন সৌদি রিয়াল ফেরত দিতে পারছিলেন না। পাওনা টাকা আদায় করতেই পাওনাদার আদালতে মামলা ঠুকে দিলেন। সেই মামলায় অনেকদিন ধরেই বৃদ্ধ জেলখানায় আটক আছেন।

এক পর্যায়ে বৃদ্ধের মেয়ে অভূতপূর্ব সিদ্ধান্ত নিলেন। নিজের বয়সের চেয়ে দ্বিগুণ হওয়া সত্ত্বেও ২০ বছর বয়সী ওই মেয়ে পাওনাদারকে বিয়ে করার মনস্থির করলেন। মেয়ের বয়সের তুলনায় পাওনাদারকে বৃদ্ধই বলা চলে। নিজ বয়সের চেয়ে দ্বিগুণ এবং ঘরে আগের তিন স্ত্রী থাকা সত্ত্বেও মেয়ে পাওনাদারকে ফোন করে বিয়ের প্রস্তাব দিলেন। বিয়ের যৌতুক নির্ধারণ করলো মেয়েই। বাবার ধার করা ৩ মিলিয়ন সৌদি রিয়ালই হলো বিয়ের যৌতুক!

বাবাকে বাঁচাতে মেয়ের এই ত্যাগ স্বীকারে অভিভূত হলেন পাওনাদার। বিয়ের আসরে চমকে দিলেন ওই মেয়েকে। বিয়ে করতে এসে মেয়েকে দিলেন ৩ মিলিয়ন সৌদি রিয়ালের একটি চেক। আর বললেন, বাবার প্রতি মেয়ের এই ভালোবাসায় তিনি মুগ্ধ। তাই মেয়েটিকে বিয়ে না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। চেকের উল্লেখিত টাকা দিয়ে মেয়েটির পছন্দের কাউকে বিয়ে করার কথা বলে দিলেন।
আর বাবার মামলা? সেটাও উঠিয়ে নিয়েছেন ওই পাওনাদার।