মেইন ম্যেনু

সিনেমাহলের নামে চলছে রমরমা দেহ ব্যবসা

সিনেমাহলের নামে চলছে সুন্দরী যুবতীদের দিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপ।এটি এলাকায় ওপেন সিক্রেট হলেও মোটা অংকের মাসিক মাসোয়ারা নিয়ে যাচ্ছে স্থানীয় প্রশাসনের কিছু দুর্নীতিবাজ ব্যক্তি। কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর উপজেলার নবীপুর পশ্চিম ইউনিয়নের কোম্পানিগঞ্জ বাজারে অবস্থিত পূর্ণিমা সিনেমাহলে দেহ ব্যবসার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অনৈতিক ও অসমাজিক কর্মকাণ্ডের কারণে এ নিয়ে এলাকার সর্বসাধারণদের মধ্যে ক্ষোভ ও বিরুপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।

নির্ভরযোগ্য তথ্যে জানা যায়, বাইরে থেকে ভিতরে পরিবেশ অনুমান খুবই কঠিন। ভিতরে প্রবেশ করলেই চোখে পড়বে ছোট ছোট অনেকগুলো কক্ষ। অথচ এর মধ্যে চলছে ভয়ঙ্কর অনৈতিক কর্মকাণ্ডের চিত্র। বাহিরের দিকটায় পর্দা টানিয়ে ভিতরে ঢুকলেই দেখা মিলবে স্কুল ও কলেজ পড়ুয়া সুন্দরী যুবতীদের আনা গোনা। স্কুল-কলেজের উঠতি বয়সী ছেলেরাসহ যুব-সমাজের একটি বড় অংশ এদের খদ্দের।

পূর্ণিমা সিনেমাহলটি স্থাপনের পর থেকে ললনাদের পতিতালয়ের অভয়ারণ্ন তৈরি করে রমরমা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে হল কর্তৃপক্ষ।প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত বিনোদনের কথা থাকলেও দিন রাত অবাধেই চলছে ললনাদের দেহ ব্যবসা।

অভিযোগ পাওয়া যায়, এ হলটির মাটির নিচে ও দু’তলায় ছোট আকারের বেশ কয়েকটি রুম তৈরি করে দেহ ব্যবসা পরিচালনা করে।এ সমস্ত অসামাজিক কাজে সম্পৃক্ত হওয়ায় যুব সমাজের মধ্যে চুরি, ডাকাতি, ছিনতাই ও চাঁদাবাজি বেড়ে যাচ্ছে। এতে স্থানীয় অভিবাবকরা তাদের সন্তানদের নিয়ে সঙ্কিত রয়েছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ীরা জানান, এ পতিতা ব্যবসা পূর্ণিমা সিনেমাহলের মালিক শহীদুল ইসলাম শহীদের নেতৃত্বে তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী কামাল ও শাহজাহান পরিচালনা করে যাচ্ছে।

আরো অভিযোগ করে বলেন, কেউ এই অবৈধ কাজের ব্যাপারে মুখ খোলার সাহস পায়না। কেউ কোন প্রকার প্রতিবাদ করলে তাদেরকে মারধর, মামলা ও হত্যার হুমকি প্রদান করে।

অভিশপ্ত জীবন থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের দৃষ্টি কামনা করে, পতিতা ব্যবসার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয়ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান এলাকাবাসী।পূর্ণিমা সিনেমাহলের মালিক শহীদুল ইসলাম শহীদ দেহ ব্যবসারকথা অস্বীকার করে বলেন, এখানে ছেলে-মেয়েরা আসে ছবি দেখতে।এ ব্যাপারে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, এ বিষয়টির সম্পর্কে আমরা অবহিত নয়। বিষয়টি এখন আমরা দেখব।