মেইন ম্যেনু

সিফাত হত্যাকান্ডে আসামীকে জামিন দেওয়ার ষড়যন্ত্র : মানববন্ধনে বক্তারা

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চতুর্দশ ব্যাচের শিক্ষার্থী ওয়াহিদা সিফাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি মোহাম্মদ আসিফ ওরফে পিসলিকে জামিন দেওয়ার ষড়যন্ত্র চলছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় রাজশাহী মহানগর জজ আদালতের সামনে রাবির গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের বর্তমান শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদী মানববন্ধনে বক্তারা এসব কথা বলেন ।

পিসলিকে ষড়যন্ত্রমূল ভাবে জামিন দেওয়া হলে এবং সিফাত হত্যাকান্ডের ন্যায় বিচার না হলে রাবি গণযোগাযোগ বিভাগ বসে থাকবে না বলে মানববন্ধন থেকে হুশিয়ারি দেওয়া হয়।

গণযোগাযোগ বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী হাসান আশরাফুল সজলের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী আলী রমজান, মাহাবুব আলম, ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী মো. আলী হুসাইন মিঠু , অধরা মাধুরী পরমা প্রমূখ।

এসময় বক্তারা বলেন, হত্যাকান্ডের প্রায় তিনমাস অতিবাহিত হলেও ওয়াহিদা সিফাত হত্যা মামলার তেমন কোনো অগ্রগতি হয়নি। পিসলির পিতা মোহাম্মদ হোসেন রমজান রাজশাহীর একজন প্রভাবশালী আইনজীবী হওয়ায় হত্যা মামলাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। আজ অন্যায়ভাবে পিসলিকে জামিন দেওয়ার ষড়যন্ত্র চলছে।

বক্তারা আরো বলেন, শুরু থেকেই পুলিশ স্পর্শকাতর এই মামলার তদন্তের গড়িমসি করছে। মামলাটিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টাও করা হয়েছে, এখনো করা হচ্ছে। অবিলম্বে মামলার বাকি আসামিদের (পিসলির পিতা, মাতা) গ্রেফতার করে এই হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু তদন্ত এবং দৃষ্টান্তমূলক বিচার করতে হবে। যাতে সিফাতের মতো কাউকে অকালে প্রাণ দিতে না হয়।

গত ২৯ মার্চ সন্ধ্যায় রাজশাহী মহানগরীর মহিষবাথান এলাকায় অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ হোসেন রমজানের বাড়িতে রহস্যজনক মৃত্যু হয় গৃহবধূ ওয়াহিদা সিফাতের। তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন ছিল। এ ঘটনায় ৬ এপ্রিল সিফাতের চাচা বাদী হয়ে রাজপাড়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।