মেইন ম্যেনু

সিম নিবন্ধন কাজ এ মাসেই কি শেষ হবে?

আঙুলের ছাপ নিয়ে মোবাইল ফোনের সিম পুন:নিবন্ধন শুরুর পর থেকেই বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে।চলতি মাসের মধ্যেই এর কাজ শেষ করার কথা থাকলেও, এখনো অর্ধেক সিম নিবন্ধন বাকি রয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।বাকি আছে মাত্র ২০দিন।

সময় শেষ হয়ে এলেও এর মধ্যে কাজ কি সম্পন্ন করা যাবে? এপ্রিলের মধ্যে সিম নিবন্ধন না করলে কি হবে সেনিয়েও মানুষের মধ্যে উদ্বেগ রয়েছে।

বেসরকারি মোবাইল ফোন কোম্পানি গ্রামীণ ফোনের চিফ কর্পোরেট এফেয়ার্স অফিসার মাহমুদ হোসেন বলছেন, “শুরুর পর থেকে কাজ বেশ ভালই এগুচ্ছিলো কিন্তু এনিয়ে আদালতে একটি রিট দায়ের হওয়ার পর থেকে এর গতি কিছুটা কমে গেছে”

মি হোসেন আরো বলছেন, “যত সিম এখনো পুন:নিবন্ধন বাকি তার সংখ্যাটা অনেক বড়। এই সময়ের মধ্যে তা শেষ করাটা অনেক বড় চ্যালেঞ্জ”

তবে তিনি বলছেন, যেহেতু সরকার একটি সময় বেধে দিয়েছেন তাই তারা আবারো জোর প্রচারণা শুরু করবেন। আঙুলের ছাপ নিয়ে মোবাইল ফোনের সিম পুন:নিবন্ধন করাতে আর একটি যে জিনিস লাগে তা হলো জাতিয় পরিচয় পত্র।

কিন্তু অনেকের কাছেই সেটি নেই। তার বিকল্প হিসেবে পাসপোর্টের বিপরীত পুন:নিবন্ধনের একটি ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এই কর্মকর্তা বলছেন, যাদের নিতান্তই এ দুটোর কোনটাই নেই তাদের অনেকেই পরিবারের সদস্যদের নামে নিবন্ধন করিয়ে নিচ্ছেন।

এপ্রিলের মধ্যেই যদি কেউ সিম নিবন্ধন না করাতে পারেন তবে তার সিমটি বন্ধ করে দেয়া হবে কিনা সেনিয়ে এখনি কোন সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন তিনি।

এদিকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেছেন, আমাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী আগামী ৩০শে এপ্রিলের মধ্যে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন শেষ করব। এর মধ্যে যেগুলোর নিবন্ধন হবে না- সেগুলোর গ্রাহককে নিবন্ধনে বাধ্য করতে কয়েক ঘণ্টা করে সিম বন্ধ ও এসএমএস দিয়ে সতর্ক করা হবে। এরপরও বায়োমেট্রিক নিবন্ধন না করলে ওইসব সিম বন্ধ করে দেওয়া হবে।

সূত্র: বিবিসি বাংলা।