মেইন ম্যেনু

সিরিয়ার ৪০ লাখ শরণার্থি নথিভুক্ত

জাতিসংঘের শরণার্থি বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর জানিয়েছে, সিরিয়ার প্রায় ৪০ লাখ শরণার্থি তাদের নাম নথিভুক্ত করেছে। এসব শরণার্থিদের অধিকাংশই তুরস্কে অবস্থান করছে।

সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ চলতি বছর পাঁচ বছরে পা দিয়েছে। এই সময়ের মধ্যে দেশটির প্রায় ৭৬ লাখ লোক বাস্তুহীন হয়েছে, ৩৯ লাখ ৮০ হাজার লোক দেশ ছেড়ে পালিয়েছে এবং লাখের বেশি লোক শরণার্থি তালিকায় নাম অর্ন্তভুক্তের জন্য অপেক্ষা করছে। সিরিয়ার শরণার্থিদের মধ্যে অর্ধেকেরই বয়স ১৮ এর নিচে।

অধিকার কর্মীরা জানিয়েছেন, গত কয়েক মাস ধরে সিরিয়ায় যুদ্ধের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ায় প্রতিবেশি দেশগুলিতে বাসিন্দাদের পালিয়ে যাওয়ার হার বেড়েছে। বিশেষ করে ইসলামিক স্টেটের যোদ্ধারা গত মাসে সিরিয়ার পালমিরা দখলের পর উত্তর-পূর্বের প্রদেশ হাসাকার দিকে এগুতে শুরু করার পর শরণার্থিদের সংখ্যা বেড়েছে।

জাতিসংঘ ভবিষ্যদ্বানী করে বলেছে, ২০১৫ সাল নাগাদ ৪২ লাখ ৭০ হাজার সিরিয় শরণার্থি হিসেবে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করতে পারে। ২০ বছর আগে রুয়ান্ডার গণহত্যার পর এটা হবেই বিশ্বের সবচেয়ে বেশি সংখ্যক লোকের নির্বাসনের ঘটনা।

ইউএনএইচসিআরের মুখপাত্র মেলিসসা ফ্লেমিং বলেছেন, ত্রানের অভাবে এই বিশাল সংখ্যক শরণার্থিকে নিয়ে এটে ওঠা মুশকিল।

তিনি বলেন, ‘২০১৪ সালে আমরা যে পরিমান তহবিলের অনুরোধ জানিয়েছিলাম তার মাত্র ৫৪ শতাংশ পেয়েছি। তার মনে হচ্ছে আমরা চাহিদার মাত্র অর্ধেক পূরণ করতে পেরেছি।’