মেইন ম্যেনু

সিরিয়ায় ‘আইএসের হামলায়’ নিহত ১০০

সিরিয়ায় প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের নিয়ন্ত্রণে থাকা লাটাকিয়া প্রদেশের বিভিন্ন এলাকায় ইসলামিক স্টেট (আইএস) বেশ কয়েকটি হামলায় চালিয়েছে। এতে নিহত হয়েছে কমপক্ষে ১০০ জন। আহত হয়েছে বহু লোক।

পর্যবেক্ষণকারী সংস্থাগুলোর বরাত দিয়ে আলজাজিরা অনলাইনের এক খবরে সোমবার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে খবরটি প্রকাশ করা হয়েছে। তবে নিহতের সংখ্যা বলা হয়েছে ৬৫। তবে এসব হামলা আইএস চালিয়েছে কি না, তা নিয়ে কোনো তথ্য দেওয়া হয়নি এ চ্যানেলে।

সিরিয়ার লাটাকিয়া প্রদেশের উপকূলীয় শহর তারতুস ও জাবলেহর কয়েকটি বাস স্টেশন, হাসপাতাল ও অন্য জায়গায় কারবোমা ও আত্মঘাতী হামলা চালানো হয়। এতে ওই হতাহতের ঘটনা ঘটে।

লন্ডনভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, সোমবারের এসব হামলা বাশার সরকারের সার্বভৌম প্রতিরক্ষার জন্য হুমকি হিসেবে দেখা হচ্ছে।

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল ইখবারিয়ায় প্রকাশিত ফুটেজে দেখা গেছে, হামলার পর কয়েকটি প্রাইভেটকার ও মিনিবাসের কাঠামো দুমড়ে-মুচড়ে পথের ধারে পড়ে আছে।

সিরিয়ান অবজারভেটরি জানিয়েছে, জাবলেহ এলাকায় আইএসের এসব হামলায় নিহত হয়েছে ৫৩ জন এবং তারতুসে নিহত হয়েছে কমপক্ষে ৪৮ জন। তারতুসে অন্ততপক্ষে তিনটি এবং জাবলেহতে কমপক্ষে চারটি বিস্ফোরণ হয়েছে।

আইএস তাদের নিজস্ব সংবাদমাধ্যম আমাক নিউজ এজেন্সিতে এসব হামলার দায় স্বীকার করে বিবৃতি দিয়েছে। এই প্রথম বারের মতো লাটাকিয়ায় সিরিজ হামলা করতে সক্ষম হলো জঙ্গিরা।

লাটাকিয়ায় রাশিয়ার একটি নৌঘাঁটি আছে। জাবলেহর পাশেই রাশিয়ার ‘ডেকের’ বিমানঘাঁটি রয়েছে।