মেইন ম্যেনু

সিরিয়ায় রুশ হামলার পক্ষে পুতিনের সাফাই

সিরিয়ায় রুশ বিমান হামলার পক্ষে সাফাই গেয়েছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। রোববার রুশ টেলিভিশনে প্রচারিত এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে পরিচালিত এই বিমান হামলা সিরিয়ায় ‘একটি রাজনৈতিক সমঝোতার পরিবেশ তৈরি করবে’। গত ৩০ সেপ্টেম্বর সিরিয়ায় বিমান হামলা শুরু করার পর এ নিয়ে প্রথমবারের মত মুখ খুললেন পুতিন।

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন দাবি করেছেন, সিরিয়ায় রাশিয়ার সামরিক অভিযানের লক্ষ্য হচ্ছে দেশটির প্রেসিডেন্ট বশির আল আসাদের ‘বৈধ কর্তৃত্বকে স্থিতিশীল’ হতে সহায়তা করা। আর এর মাধ্যমে সিরিয়ার রাজনৈতিক সমঝোতার পরিবেশ তৈরি করতে চায় মস্কো।

এসময় তিনি যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্র দেশগুলো রাশিয়া সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেট জঙ্গিদের বদলে আসাদের বিরুদ্ধে লড়াইরত মধ্যপন্থি বিদ্রোহীদের ওপরই বেশি হামলা চালাচ্ছে বলে যে অভিযোগ তুলেছে, তা নাকচ করে দেন পুতিন।

রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন ‘রোশিয়া ওয়ান’কে দেয়া সাক্ষাৎকারে প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, রাশিয়ার প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে দামেস্ক সরকারকে ‘স্থিতিশীল’ করা। কেননা তার আশঙ্কা, সিরিয়ার ক্ষমতা দখল করার পর সন্ত্রাসীরা হয়তো রাশিয়ার দিকে নজর দিতে পারে।

পুতিন বলেছেন, ‘সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে যদি রাশিয়া সমর্থন না দেয় তাহলে, সিরিয়ার নিয়ন্ত্রণ নেবার পর এই সকল জঙ্গি গোষ্ঠী হয়তো রুশ সীমানার জন্য হুমকি হয়ে উঠতে পারে।’ রুশ নেতা ওই অক্ষ শক্তির (সন্ত্রাসবাদ) বিরুদ্ধে অন্য দেশগুলোকেও একজোট হয়ে লড়াই করার আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে সিরিয়া নিয়ে সৌদি আরব ও রাশিয়ার মধ্যে যে মতপার্থক্য রয়েছে তার সমাধানে সোমবার সৌদি প্রতিরক্ষামন্ত্রী মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে বৈঠক করেছেন পুতিন। তারা সিরিয়ায় শান্তি প্রতিষ্ঠায় একসঙ্গে কাজ করতেও সম্মত হয়েছেন।