মেইন ম্যেনু

সিরিয়ায় ৫ বছরে ৬০ হাজার বন্দি নিহত

সিরিয়ায় গত পাঁচ বছরের গৃহযুদ্ধে ৬০ হাজারের বেশি জেলবন্দি মারা গেছে। সরকারি কারাগারগুলোতে বন্দি অবস্থায় নানা ধরনের নির্যাতনের কারণেই এই বিপুল সংখ্যক বন্দি প্রাণ হারিয়েছে বলে মানবাধিকার সংস্থাগুলো জানিয়েছে।

শনিবার যুক্তরাজ্যভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউমেন রাইটসের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা রামি আবদেল রাহমান বলেছেন, ‘২০১১ সাল থেকে এ পর্যন্ত সিরিয়া সরকারের হাতে বন্দি অবস্থায় কমপক্ষে ৬০ হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। কারাগারগুলোতে বিরাজ করছে অমানবিক পরিস্থিতি। সরকারি বাহিনীর হাতে ভয়াবহ নির্যাতন এবং পর্যাপ্ত খাদ্য ও ওষুধের অভাবে এতগুলো মানুষ মারা গেছে।’

এর আগে সিরিয়ায় জাতিসংঘের বিশেষ দূত স্টাফান ডি মিস্তুরা বলেছেন, গত পাঁচ বছরের যুদ্ধে দেশটির ৪ লাখ মানুষ নিহত হয়েছে। তবে এটি তার ব্যক্তিগত মতামত। জাতিসংঘের পরিসংখ্যানের সঙ্গে এর কোনো মিল নেই।

মানবাধিকার সংস্থা হিউমেন রাইটস ওয়াচের (এইচআরডব্লিউ) মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক গবেষক নাদিম হাউরিও একই দাবি করেছেন। তিনি আল জাজিরাকে বলেছেন, ‘বন্দিদের ওপর অকথ্য নির্যাতন চালিয়ে থাকে সিরিয়া সরকার। সে দেশের জেলখানাগুলোতে বন্দিরা দীর্ঘদিন ধরেই অমানবিক নির্যাতনের শিকার হচ্ছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। ওই নির্যাতনের কারণেই এত লোক মারা গেছে।’

গত ডিসেম্বরে এইচআরডব্লিউ’র সচিত্র প্রতিবেদনে সরকার নিয়ন্ত্রিত কারাগারগুলোতে ২৮ হাজার বন্দি মারা গেছে বলে দাবি করা হয়েছিল। প্রতিবেতনে সিরিয়া সরকার সেখানে মানবতা বিরোধী অপরাধ চালাচ্ছে বলেও উল্লেখ করা হয়েছিল। গত পাঁচ মাসেও ওই পরিস্থিতির কোনো উন্নতি হয়নি বলে দাবি করেছেন হাওরি। তিনি এজন্য বিশ্বের শক্তিশালী দেশগুলোকে দায়ী করে বলেন,‘সিরীয় বন্দিদের অমানবিক নির্যাতন আর মৃত্যুর কথা জানার পরও চুপ করে আছে গোটা বিশ্ব। এ নিয়ে তাদের কোনো মাথাব্যাথা নেই।’



(পরের সংবাদ) »