মেইন ম্যেনু

সুখনিদ্রায় সহায়তা করে ক্যালসিয়াম

হাড় গঠনে ক্যালসিয়ামের ভূমিকার কথা আমরা সবাই জানি। কিন্তু জানেন কি রাতে সুখনিদ্রায় যেতেও ক্যালসিয়াম সহায়তা করে। জাপানে নতুন এক গবেষণায় এ তথ্য দেয়া হয়েছে।

গবেষণায় প্রকাশ, নিউরনের ভেতরে ক্যালসিয়ামের কার্যকলাপের ওপর ভালো ঘুম নির্ভর করে। ক্যালসিয়াম আয়ন ঘুমের ব্যাপ্তি এবং নিয়ন্ত্রণের জন্য দায়ী।

গবেষণা নিবন্ধটি নিউরন জার্নালে প্রকাশিত হয়। গবেষণায় অনিদ্রা এবং ঘুমের সময় শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যাসহ নিউরো ডিজনারেটিভ রোগের সঙ্গে সম্পর্কিত বিভিন্ন রোগ নির্ণয় এবং চিকিৎসার উপায় সম্পর্কে বলা হয়েছে।

গবেষণা নিবন্ধটিতে বলা হয়, বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে মানুষ এবং অন্যান্য জীবজন্তুর ঘুমের পরিমাণ ধীরে ধীরে কমতে থাকে। ঘুম মূলত আমাদের মানবদেহের সারাদিনের জক্কি ও পরিশ্রম সামলাতে সাহায্য করে। মস্তিষ্কের ক্ষয় এবং রোগ প্রতিরোধক ব্যবস্থাপনাকে পুনরুদ্ধার করে।

জাপানের টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক এবং গবেষণার লেখক হিরোকি উয়েদা বলেন, যদিও ঘুম মৌলিক শারীরিক কার্যাবলীর একটি অংশ। কিন্তু ঘুমের পুরো প্রক্রিয়াটি আজও রহস্যাবৃত।

গবেষকরা ঘুমের পরিমাণ নির্ণয় মডেল তৈরি করে ইঁদুরের ওপর তার পরীক্ষা চালান। তারা ইঁদুরের জেগে থাকা এবং ঘুমানোর জন্য দায়ী সাতটি জিন খুঁজে পান। গবেষক দল তাদের পূর্বানুমান পরীক্ষা করার জন্য জেনেটিক্যালি পরিবর্তিত ২১টি পৃথক প্রজাতির ইঁদুর বেছে নেন। ২১টির মধ্যে সাত প্রজাতি ইঁদুরের ঘুমের ব্যাপ্তিতে তাৎপর্যপূর্ণ পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে।

গবেষকরা বলেন, ইঁদুরের ঘুমানোর ক্ষেত্রে নিউরনের মধ্যে ক্যালসিয়াম আয়নের প্রবাহ এবং জেগে উঠার জন্য নিউরনের থেকে ক্যালসিয়াম আয়ন বাদ দেয়ার বিষয়টি জড়িত ছিল।



« (পূর্বের সংবাদ)