মেইন ম্যেনু

সুন্দরগঞ্জে তীব্র দাবদাহে সীমাহিন বিদ্যুৎ বিভ্রাটে দূর্ভোগ চরমে

নুরুল আলম ডাকুয়া, সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি : গ্রীষ্মের তীব্র দাবদাহে বিদ্যুৎ বিভ্রাটে গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জবাসীকে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সুন্দরগঞ্জে প্রতিদিন পৌর ও মফসল এলাকাতেই ৫ থেকে ৬ বার করে ১ থেকে দেড় ঘন্টার লোডশেডিং করা হচ্ছে। গত তিন সপ্তাহ ধরে সুন্দরগঞ্জে বিদ্যুৎ বিভ্রাট চরম আকার ধারণ করেছে। প্রতি এক থেকে দু’ ঘন্টা পর পর লোডশেডিং করে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে। গ্রামাঞ্চলে এ অবস্থা আরও ভয়াবহ। তাই বিদ্যুৎ নিয়ে গ্রামাঞ্চলের মানুষের মধ্যে একটি কথা চালু রয়েছে- ‘পল্লী অঞ্চলে বিদ্যুৎ যায় না’ বরং ২৪ ঘন্টায় মাঝে মাঝে কিছু সময়ের জন্য আসে। বিদ্যুৎ বিভ্রাটের ফলে মোমবাতি ও মোবাইল জ্বালিয়ে ব্যবসা-বাণিজ্যসহ প্রয়োজনীয় কাজ সারতে হচ্ছে বিদ্যুৎ গ্রাহকদের। বিশেষ করে প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ডিগ্রী পরীক্ষা চলাকালে এই বিদ্যুৎ বিভ্রাটে শিক্ষার্থীরা চরম বিপাকে পড়েছে। ফলে ছাত্রছাত্রীদের লেখাপড়া মারাত্মকভাবে বিঘিœত হচ্ছে। সুন্দরগঞ্জ বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগে সুত্রে জানা গেছে, সুন্দরগঞ্জে বিদ্যুৎ এর চাহিদা ৯ মেগাওয়াট সরবরাহ লাইনে বিদ্যুৎ আসছে মাত্র ৩ থেকে ৪ মেগাওয়াট। ফলে লোডশেডিং করে বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে গিয়ে এই চরম দুর্ভোগের কবলে পড়েছে মানুষ। আরও জানা গেছে, রাতে বিশেষ করে পিক আওয়ারে ৪ থেকে ৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে। ফলে সংগত কারণেই গ্রামগুলোতে লোডশেডিং করে পৌর এলাকায় লোডশেডিংয়ের কমিয়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ অব্যাহত রাখা হচ্ছে। তবে গ্রামাঞ্চলের লোকজন জানিয়েছেন, শুধু পিকআওয়ারেই নয় দিনের বেলাতেও ৩ থেকে ৫ ঘন্টা লোডশেডিং করে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে। এদিকে সুন্দরগঞ্জ বিদ্যুৎ সরবরাহ ব্যবস্থার উন্নতি কবে নাগাত হবে এব্যাপারে সুন্দরগঞ্জ বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগ নিশ্চিত করে তা বলতে পারেনি।