মেইন ম্যেনু

সুপ্রিমকোর্ট বার নির্বাচন: প্রথম দিনের ভোটগ্রহন সম্পন্ন

আইনজীবীদের শীর্ষ সংগঠন সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের ২০১৬-১৭ সালের নির্বাচনে প্রথম দিনের ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। দু’দিন ব্যাপী ভোট গ্রহণ বুধবার সকাল ১০টা থেকে শুরু হয়।মাঝে এক ঘণ্টা বিরতি দিয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ চলে। আজ ১৮শ’ ৬৮ ভোট কাস্ট হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন-সংক্রান্ত সাব-কমিটির আহবায়ক অ্যাডভোকেট হারুনুর রশীদ।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে আবারো ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ওই দিন ভোট গ্রহণ শেষে রাতেই ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

নির্বাচনে পাঁচ হাজার ২৮ জন ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। নির্বাচন-সংক্রান্ত সাব-কমিটির আহবায়ক হিসেবে অ্যাডভোকেট হারুনুর রশীদের নেতৃত্বে সাত সদস্যের কমিটি দায়িত্ব পালন করছেন।

সুপ্রিম কোর্ট বারের কার্যনির্বাহী কমিটির ১৪টি পদে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর মধ্যে সাতটি সম্পাদকীয় ও সাতটি নির্বাহী সদস্যের পদ রয়েছে। মোট ৩৪ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করলেও দুজন প্রত্যাহার করায় এখন প্রার্থী রয়েছেন ৩২ জন।

সুপ্রিম কোর্ট বার নির্বাচনে বরাবরের মত মূল প্রতিদ্বন্দ্বীতা হচ্ছে সরকার সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ ‘সাদা’ প্যানেল এবং জাতীয়তাবাদী ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদের ‘নীল’ প্যানেলের মধ্যে।

সুপ্রিমকোর্ট বারের সুপারিনটেনডেন্ট নিমেষ চন্দ্র দাস জানান, সভাপতি পদে ৩ জন, সহ-সভাপতি পদে ৪ জন, সম্পাদক পদে ৪ জন , কোষাধ্যক্ষ পদে ২ জন, সহ-সম্পাদক পদে ৫ জন এবং সদস্য পদে ১৪ জন চুড়ান্ত ভাবে প্রতিদ্ধন্ধিতায় রয়েছেন। এ নির্বাচনে ভোটার সুপ্রিমকোর্টের মোট ৫ হাজার ২৮ জন আইনজীবী।

নির্বাচনে সরকার সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ ‘সাদা’ প্যানেল থেকে সভাপতি পদে সিনিয়র আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন ও সম্পাদক পদে এডভোকেট আজহার উল্লাহ ভুইঁয়ার নেতৃত্বে একটি প্যানেল এবং অপরদিকে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্যের নীল প্যানেলে সিনিয়র আইনজীবী জয়নুল আবেদিন ও সম্পাদক পদে ব্যারিস্টার এএম মাহবুব উদ্দিন খোকনের নেতৃত্বে একটি প্যানেল প্রতিদ্বন্ধিতা করছে।

সাদা প্যানেল থেকে সহ-সভাপতি পদে মো. তাহেরুল ইসলাম ও সুরাইয়া বেগম, কোষাধ্যক্ষ পদে মো. রমজান আলী শিকদার, সহ-সম্পাদক পদে দুজন হচ্ছেন এ.কে.এম রবিউল হাসান সুমন ও শেখ সিরাজুল ইসলাম সিরাজ প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। এ প্যানেল থেকে সদস্যপদে প্রার্থীরা হলেন-কুমার দেবুল দে, খান মুহাম্মদ শামিম আজিজ, মো. আজিজ মিয়া (মিন্ট), মো. হাবিবুর রহমান (হাবিব),মোহাম্মদ আশরাফুল ইসলাম, নাসরিন সিদ্দিকা (লিনা) ও সাহানা পারভিন।

নীল প্যানেলে অন্য প্রার্থীরা হলেন-সহ-সভাপতি পদে ফাহিমা নাসরিন মুন্নী ও মো. গোলাম মোস্তফা, কোষাধ্যক্ষ পদে নাসরিন আক্তার, সহ-সম্পাদক পদে মো. শহিদুজ্জামান ও মো. ইউসুফ আলী। এছাড়া এ প্যানেল থেকে সদস্যপদে প্রার্থীরা হলেন- মমতাজ বেগম (বিউটি), মো. কামাল হোসেন, মো. নাসির উদ্দিন খান (সম্রাট), নাসির উদ্দিন আহমেদ অসিম, নাসরিন ফেরদৌস, রেজাউল করিম (রেজা)ও এস কে তাহসিন আলি।