মেইন ম্যেনু

সুবিদ আলীর বিরুদ্ধে মামলা তদন্তের নির্দেশ

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানকে প্রথম রাষ্ট্রপতি বলার অভিযোগ এনে সরকারদলীয় এমপি সুবিদ আলীর বিরুদ্ধে দায়ের করা মানহানি মামলাটি থানাকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম সত্যপদ শিকদারের মামলাটি শেরেবাংলা নগর থানার পরিদর্শকে (তদন্ত) তদন্ত করে আগামী ১৩ অক্টোবরের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

এর আগে সকালে দাউদকান্দি উপজেলার যুবলীগ নেতা জিলানী সরকার বাদী হয়ে সুবিদ আলীর বিরুদ্ধে একটি মানহানি মামলা করেন।

অভিযোগ রয়েছে, গত ১৭ আগস্ট সরকারি প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির বৈঠকে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা মেজর জিয়াউর রহমানকে বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি উল্লেখ করেন সুবিদ আলী ভূঁইয়া।

এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হলে এক সংবাদ সম্মেলনে সুবিদ আলী বলেন, জিয়াউর রহমানকে প্রথম রাষ্ট্রপতি বলেছি এ কথার প্রমাণ দিতে পারলে আমি দল ও সংসদ সদস্যপদ থেকে পদত্যাগ করবো।

সুবিদ আলী ভূঁইয়া বিএনপি চেয়ারপাসন খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী থাকার সময় সশস্ত্র বাহিনীর প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) ছিলেন। চাকরি শেষে বিএনপির মনোনয়ন চেয়েও না পেয়ে ২০০১ সালে কুমিল্লার দাউদকান্দি (কুমিল্লা-১) থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে হেরেছিলেন।

এরপর তিনি আওয়ামী লীগে যোগ দিয়ে ২০০৮ সালে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হয়ে বিএনপির প্রভাবশালী নেতা খন্দকার মোশাররফ হোসেনকে হারিয়ে সংসদ সদস্য হন।