মেইন ম্যেনু

সেনবাগে ডাকাতের গুলিতে আহত ব্যক্তির মৃত্যু

এম.এ আয়াত উল্যা, স্টাফ রিপোটার, নোয়াখালী : নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার কাদরা ইউনিয়নে ডাকাতিকালে ডাকাতদের গুলিতে আহত রশরাজ ভৌমিক (৪৫) ২০ দিন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

শনিবার (২৫ জুন) সকালে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে তিনি মারা যান। নিহত রশরাজ ভৌমিক কাদরা ইউনিয়নের নিজসেনবাগ গ্রামের নবকৃষ্ণ মজুমদার বাড়ীর সূর্য মোহন দাসের ছেলে। স্থানীয়রা জানায়, চলতি মাসের ৪ জুন দিনগত রাতে কাদরা ইউনিয়নের নবকৃষ্ণ মজুমদার বাড়ীর শুকান্ত চন্দ্র ভৌমিকের ঘরে ১০-১২ জনের একদল ডাকাত প্রবেশ করে। পরে তারা ঘরে থাকা লোকজনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার ও মোবাইলসহ মূল্যবান মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

এসময় ঘরে থাকা লোকজন ডাকাত ডাকাত বলে চিৎকার করলে ওই বাড়ীর পাশের ঘরের লোকজন ছুঁটে এসে ডাকাতদের ধাওয়া করে। এসময় ডাকাতদল লোকজনকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়লে রশরাজ ভৌমিক পায়ে গুলিবিদ্ধ হন। পরে পরিবারের লোকজন তাকে প্রথমে ফেনী সরকারী হাসপাতালে, পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করে।

শনিবার সকালে ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুন উর রশিদ জানান, বিষয়টি আমরা শুনেছি। তবে এ ঘটনায় এখনো পর্যন্ত কেউ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।