মেইন ম্যেনু

সেনাবাহিনীর ‘বীর’ কুকুরের সম্মানে সমাধিফলক!

প্রতিটি দেশের প্রতিরক্ষায় কত বীর আত্মনিবেদন করেন৷ আলাদা আলাদা দেশের ইতিহাস তাদের মনে রাখে৷ লেখা থাকে তাদের কীর্তি-গাথা৷ কিন্তু আরো এমন অনেকেই তো থাকে, যাদের আত্মবলিদানের কথা কোথাও লেখা থাকে না৷ সেনাবাহিনীতে যে কুকুর থাকে, যাদের নিষ্ঠায় কত বিস্ফোরণ রুখে দেয়া সম্ভব হয়, তাদের কথা কেইবা মনে রাখে! তবে এর ব্যতিক্রমও আছে৷ ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর এরকমই এক কুকুরের সম্মানে তৈরি সমাধিফলক সারা বিশ্বে নজির হয়ে থাকল৷

বুস্টার নামে এই কুকুরটি ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত৷ লুকনো বিস্ফোরক খোঁজার কাজে নিয়োগ করা হয়েছিল তাকে৷ নিজের দায়িত্ব সে পালন করেছিল অসামান্যভাবে৷ সারা পৃথিবীর প্রায় পাঁচটি দেশে তাকে কাজের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছিল৷ এতটাই দক্ষ ছিল সে৷ কর্মজীবনে অসংখ্য বিস্ফোরকের সন্ধান পেয়েছে এই কুকুর৷ একদিকে যেমন বাঁচিয়ে দিয়েছে বহু মানুষের প্রাণ, তেমনি প্রাণ বাঁচিয়েছে সেনাদেরও৷ এই কুকুরের জন্যই যে সকল মানুষের প্রাণ বেঁচেছে তারা জানেনও না বুস্টারের কথা৷

২০১২ সালে সেনাবাহিনীর কাজ থেকে অবসর নেয় সে৷ তারপর নিজের পালকের কাছেই থাকত৷ মৃত্যুর পর রয়্যাল এয়ার ফোর্সের সামনেই তার সমাধিফলক তৈরি করা হয়৷ লেখা হয় তার কীর্তির কথা৷

বহু দেশের প্রতিরক্ষাতেই এরকম নীরবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে প্রাণীরা৷ কিন্তু দুর্ভাগ্য, তাদের জন্য এরকম সম্মানের ব্যবস্থা নেই৷ বুস্টারকে দেয়া এই সম্মান হয়তো ‘বীর’ কুকুরদের সম্মান দিতে উৎসাহ করবে গোটা দুনিয়াকেই৷-সংবাদ প্রতিদিন