মেইন ম্যেনু

সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে লন্ডন যাচ্ছেন খালেদা

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার লন্ডন সফর নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিলেও আগামী সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে লন্ডনের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন তিনি। বিএনপির একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সূত্রটি আরও জানায়, বার কাউন্সিল নির্বাচনের সময় আইনজীবীরা খালেদা জিয়াকে দেশে থাকার অনুরোধ করেছেন। সে জন্যই তিনি গত ১৪ আগস্ট রাতে লন্ডন সফর স্থগিত করেছিলেন।

আইনজীবীদের সর্বোচ্চ সংস্থা বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের নির্বাচন ২৬ আগস্ট (বুধবার) নির্বাচন এবং আগামী ২৭ আগস্ট জিয়া চ্যারিটেবল ও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির দুই মামলার শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। ওইদিন খালেদা জিয়া ঢাকার বকশীবাজারের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত তৃতীয় বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদ্দারের আদালতে উপস্থিত থাকবেন।

এছাড়াও আগামী ১ সেপ্টেম্বর দলের ৩৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। ওই দিন বিএনপি প্রধান খালেদা জিয়া সকাল ১০টায় দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন এবং বিকাল তিনটায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

এসব কারণেই চলতি মাসে খালেদা জিয়ার লন্ডনে যাওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন দলের একাধিক নেতা। তবে এসব কর্মকাণ্ড শেষ হওয়ার পরই লন্ডনে যাওয়ার প্রস্তুতি নেবেন এবং সেপ্টেমম্বরের প্রথম সপ্তাহে খালেদা জিয়া লন্ডনে যাবেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবিহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘বার কাউন্সিল নির্বাচনের জন্য খালেদা জিয়ার লন্ডন সফর বাতিল করা হয়েছিল। তবে তার (খালেদা) লন্ডন সফরের পরবর্তী দিন তারিখ এখনও নির্দিষ্ট করা হয় নি।’

এ বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জে (অব) মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘এই সফর তার (খালেদা) ব্যক্তিগত। তাই তিনি কবে নাগাদ যাবেন, সেটা আসলে আমি জানি না।’

এর আগে গত জুলাই মাসের প্রথম দিকে সৌদি বাদশাহর আমন্ত্রণে ও ওমরাহ পালনের উদ্দেশ্যে সৌদি আরবে যাওয়ার কথা থাকলেও খালেদা জিয়া সে সফর বাতিল করেছিলেন। পরে লন্ডন সফরের জন্য তৈরী হয়েও গত ১৪ আগস্ট তিনি সফর বাতিল করেছেন।