মেইন ম্যেনু

সেরা সংলাপ রচয়িতার স্বীকৃতি পেলেন হুমায়ূন আহমেদ

২০১৫ সালে মুক্তি পাওয়া চলচ্চিত্রের মধ্যে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। পুরস্কারপ্রাপ্তদের মধ্যে মোরশেদুল ইসলাম পরিচালিত ‘অনিল বাগচীর একদিন’ ছবির জন্য সেরা সংলাপ রচয়িতার স্বীকৃতি পেয়েছেন প্রয়াত কথাসাহিত্যিক ও নন্দিত নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদ।

তার স্বীকৃতি পাওয়ায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছেন হুমায়ূনভক্তরা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই প্রিয় লেখককে অভিনন্দিত করে তাকে মিস করার কথা উল্লেখ করেছেন।

হুমায়ূন আহমেদের সাহিত্যের মতোই জনপ্রিয় ছিল তার চিত্রনাট্য। এর আগেও তিনি বেশ কয়েকবার সেরা সংলাপ রচয়িতা হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছিলেন।

‘অনিল বাগচীর একদিন’ বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র। হুমায়ূন আহমেদ রচিত একই নামের উপন্যাস অবলম্বনে চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন মোরশেদুল ইসলাম। চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেছে বেঙ্গল ক্রিয়েশনস। এ ছবিতে অনিল বাগচীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন নতুন অভিনেতা আরেফ সৈয়দ।

মুক্তিযুদ্ধের দিনগুলোর অনিশ্চয়তা, মানবিকতা, স্বপ্ন, সম্প্রীতি প্রভৃতি অনুষঙ্গকে সার্থকভাবে ফুটিয়ে তোলা এই শক্তিশালী উপন্যাস অবলম্বনে মোরশেদুল ইসলাম নির্মাণ করেছেন ছবিটি। এর আগে তিনি কিশোর চলচ্চিত্র দীপু নাম্বার টু (১৯৯৬), খেলাঘর (২০০৬) এবং আমার বন্ধু রাশেদ (২০১১) নামে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন।

ছবিটিতে আরও অভিনয় করেছেন গাজী রাকায়েত, তৌফিক ইমন, জ্যোতিকা জ্যোতি, ফারহানা মিঠু, মিশা সওদাগর প্রমুখ। ছবিটির সংগীত পরিচালনা করেছেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্র সংগীত পরিচালক সানি জুবায়ের।

সেরা সংলাপ রচয়িতার পুরস্কার ছাড়াও ছবিটি ২০১৫ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে যৌথভাবে সেরা চলচ্চিত্র, সেরা চলচ্চিত্র পরিচালক ও এককভাবে সেরা সংগীত পরিচালক, সেরা পার্শ্ব চরিত্র (গাজী রাকায়েত) শ্রেষ্ঠ গায়িকা (প্রিয়াংকা গোপ) ক্যাটাগরিতে স্বীকৃতি পেয়েছে।

‘অনিল বাগচীর একদিন’ ছবিটি প্রয়াত হুমায়ূন আহমেদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করা হয়েছিল।






মন্তব্য চালু নেই