মেইন ম্যেনু

সেলিমা-শওকত-শিমুলদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

খিলগাঁও থানায় দায়ের করা নাশকতার মামলায় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শওকত মাহমুদ, প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেল, বিশেষ সহকারী শিমুল বিশ্বাসসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকা মহানগর হাকিম এমাদাদুল হক তাদের পলাতক দেখিয়ে এ পরোয়ানা জারি করেন। মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণের দিন ধার্য ছিল আজ। আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণ করে ১৪ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

অপর আসামিরা হলেন— বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব বরকত উল্লাহ বুলু, বিএনপি নেতা হাবিবুন নবী খান সোহেল, আজিজুল বারী হেলাল, শফিউল বারী বাবু, সরাফত আলী সফুসহ ১৪ জন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ৩০ জানুয়ারি বিএনপির হরতাল- অবরোধ চলাকালে খিলগাঁও ফ্লাইওভারের নিচে তুরাগ পরিবহনের একটি গাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় গাড়ির মালিক নজরুল ইসলাম খিলগাঁও থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

২০১৫ সালের ২৭ জুন খিলগাঁও থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক বিল্লাল হোসেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এমকে আনোয়ার, যুগ্ম-মহাসচিক রুহুল কবির রিজভী, আমান উল্লাহ আমান, বরকত উল্লাহ বুবু, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শওকত মাহমুদ, প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেল, বিশেষ সহকারী সামছুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, বিএনপি নেতা শিরিন সুলতানা, হাবীবুন নবী খান সোহেল, আজিজুল বারী হেলাল, শফিউল বারী বাবুসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।