মেইন ম্যেনু

সোনাইমুড়ীতে ৩ হত্যার ঘটনায় ২৪ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী নাটেশ্বর ইউনিয়নের কাজীনগর এলাকায় ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে ৩ ভাইকে হাত-পায়ের রগ কর্তন ও পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা করেছে নিহতের পরিবার। সকালে নিহতদের ছোট ভাই মৌলভী মো. মোর্শেদ আলম বাদী হয়ে একই এলাকার মৃত আলী আহাম্মদের ছেলে গোলাম মাওলা (৪৮), সাইফুল ইসলাম এর ছেলে মোঃ সালাউদ্দিন (৩৫), মৃত আবদুল কারীর ছেলে আবদুল খালেক (৬০), মীর হোসেনের ছেলে মোঃ সাদ্দাম হোসেন (২৬), আনোয়ার হোসেন (২৮), আবদুল খালেকের ছেলে মোঃ রাজু (৩০), সাজু (২৫), আবদুল হাকিমের ছেলে মো: রফিক (২৮), মৃত ইদ্রিস মিয়ার ছেলে ইসমাইল হোসেন (৩৩), আবদুল হাকিমের ছেলে মোঃ শরীফ (২৭), মোঃ হিরন (৩২), আব্দুর রহিমের ছেলে মোঃ আজিম (২৭), মোঃ জসিম উদ্দিন (৩০), আবুল খায়েরের ছেলে মোঃ তৌহিদুল ইসলাম (২৫), ফরহাদুল ইসলাম নওশেদ (২৭), নুর মোহাম্মদের ছেলে বেল্লাল হোসেন (২২), আবদুল মালেকের ছেলে শাহ আলম (২৫), মৃত আলী হোসেনের ছেলে নুরুল আমিন (৩৮), ইসমাইল হোসেনের স্ত্রী সুমি বেগম (২৬), ছেরাজুল হকের মেয়ে ফাতেমা আক্তার (৩০), মীর হোসেনের ছেলে আবুল হোসেন আবু (২৬), দেলোয়ার হোসেন (৩৩), মৃত হাজী মোহাম্মদ উল্যার ছেলে শুকর উল্যা বেছা (২৫), মৃত শেখ আহাম্মদ এর ছেলে কামাল হোসেন (৩৫) সহ ২৪ জনের নাম উল্লেখ করে সোনাইমুড়ী থানায় একটি খুনের মামলা করেছেন। সোনাইমুড়ী থানার মামলা নং- ১২, জি.আর নং- ১১৫৮/১৫। সোনাইমুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী হানিফুল ইসলাম জানান, ফাতেমা বেগম (৩০) নামে একজন আসামিকে আটক করা হয়। মামলার অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের অভিযান চলছে। উল্লেখ্য, সোনাইমুড়ী কাজীনগর গ্রামে ঈদ উপলক্ষে প্রীতি ফুটবল ম্যাচের আয়োজন করা হয়। খেলার একপর্যায়ে দুই পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা ঘটনা ঘটে। গোলাম মাওলার (৪৮) নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী কাজীনগর গ্রামের মোখছেদ উল্যাহর ছেলে হারুন, বাবলু ও কামালকে ধাওয়া করে বসতঘরে ঢুকে হাত ও পায়ের রগ কর্তন করে পিটিয়ে খুন করে। এতে ঘটনাস্থলেই ৩ ভাইয়ের মৃত্যু হয়।