মেইন ম্যেনু

সোমেশ্বরী নদীর বেড়িবাঁধে ভাঙ্গন ॥ ৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ২টি গ্রাম হুমকির মুখে

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার উপর দিয়ে বহমান সোমেশ্বরী নদীর আয়নাপুরে বেড়িবাঁধে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। গত ক’বছর পূর্বে এলজিইডি এ বেড়িবাঁধ নির্মাণ করে। গত ২১ আগস্ট পাহাড়ী ঢলে এ বেড়িবাঁধের প্রায় ৫০ ফুট ভেঙ্গে যায়।

ফলে ৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ ২টি গ্রাম হুমকির সম্মুখীন হয়ে পড়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলো হচ্ছে- আয়নাপুর উচ্চ বিদ্যালয়, বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, দাখিল মাদরাসা, হাফেজিয়া মাদরাসা, প্রাথমিক বিদ্যালয় ২টি, কিন্ডার গার্ডেন স্কুলসহ ২টি গ্রাম, ১টি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পরিত্যক্ত ইউনিয়ন পরিষদ ভবণ, বাজার হুমকির সম্মুখীন হয়ে পড়েছে। বেড়িবাঁধের উজানে স্থানীয় কতিপয় ব্যক্তি স্যালো মেশিনে সোমেশ্বরী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের কারনে বেড়িবাঁধটি ভেঙ্গে যায় বলে গ্রামবাসীরা জানায়।

বর্তমানে বেড়িবাঁধের পাশে আয়নাপুর ও নাচনমহুরী ২টি গ্রামের বাসিন্দা’রা আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। গ্রামবাসীদের মতে জরুরী ভিত্তিতে এ বেড়িবাঁধটি সংস্কার করা না হলে উল্লেখিত ২টি গ্রামসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বিলীন হয়ে যাওয়ার আশংকা রয়েছে। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ ফরিদুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি বিষয়টি উপর মহলে জানিয়েছেন বলে জানান।