মেইন ম্যেনু

সৌদিতে নারীকর্মীর সঙ্গে যাবে নিকটতম পুরুষ

নারীকর্মীর পাশাপাশি এখন থেকে পুরুষকর্মীও নেবে সৌদি আরব। তবে মধ্যপ্রাচ্যে পাঠানো নারীদের তিক্ত অভিজ্ঞতার কারণে এবার তাদের প্রতিজনের সঙ্গে একজন নিকটতম পুরুষও যাওয়ার সুযোগ পাবে বলে জানিয়েছেন বৈদেশিক কর্মসংস্থানও প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী নূরুল ইসলাম বিএসসি।

রোববার সন্ধ্যায় জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেট প্রাঙ্গণে প্রবাসী বাঙালিদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘সরকার প্রবাসীদের জন্য প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়, প্রবাসী ব্যাংকসহ নানাবিধ সুযোগ সুবিধা প্রদানের কাজ করে যাচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সবকিছুই করা হবে।’

মন্ত্রী জানান, সৌদি সরকারের সঙ্গে শ্রমবিষয়ক দ্বিপাক্ষিক কিছু বিষয়ে ফলপ্রসূ মতৈক্য হয়েছে। এখন থেকে প্রতি নারী শ্রমিকের সঙ্গে তার নিকটতম একজন পুরুষ শ্রমিক আসার ব্যবস্থা থাকবে।

তিনি আরও বলেন, বিশ্ব মন্দাতেও প্রবাসীদের রেমিট্যান্স দেশকে সচল রেখেছে। প্রবাসীদের সুবিধার জন্যে সৌদি আরবে সোনালী ব্যাংকসহ একটি প্রাইভেট ব্যাংকের শাখা খোলার প্রচেষ্টা চলছে। জেদ্দায় বাংলাদেশি ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত দুইটি স্কুলের ভবন নির্মাণে সহায়তারও আশ্বাস দেন তিনি।

নূরুল ইসলাম বিএসসিমতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব ইফতেখার হায়দার চৌধুরী, বিএমইটির মহাপরিচালক বেগম শামসুন্নাহার, রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ, জেদ্দার কনসাল জেনারেল একেএম শহিদুল করীম।
কনসাল আলতাফ হোসেনের পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন কাউন্সিলর (শ্রম) মো. মোকাম্মেল হোসেন।

মতবিনিময়ে অংশগ্রহণকারী প্রবাসী নেতাদের মধ্যে ছিলেন- অ্যাডভোকেট মাহমুদুল হাসান শামীম, বীর মুক্তিযোদ্ধা মমতাজ হোসেন চৌধুরী, কাজী আমিন আহমেদ, ইউসুফ মাহমুদ ফরাজী, আজিজুল হক, আবদুল জলীল বেপারী, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম, মার্শেল করীর পান্নু প্রমুখ।