মেইন ম্যেনু

সৌদিতে পিঁপড়া পিষে মারায় মামলা!

ইচ্ছে করে একটি পিঁপড়াকে পিষে মারার জন্য আট বছর আগে মামলা করেছিলেন এক সৌদি নাগরিক। মামলার অভিযোগে বলা হয়, তার এই কাজটি ‘ইসলামের শিক্ষার সঙ্গে যায় না।’

অভিযোগকারী আরও বলেন, ‘একটি পিঁপড়া হচ্ছে আল্লাহর সৃষ্টি এবং তার সৃষ্ট জীবের বেঁচে থাকার অধিকার রয়েছে।’

পিঁপড়া হত্যাকারীর উপর ‘ইসলামী বিধান’ আরোপ করার দাবি জানান অভিযোগকারী।

আল-আরাবিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বিচারক মোহাম্মদ আল ফায়েজ মামলাটি গ্রহণ করেছিলেন। আদালতে কিছু আইনি লড়াই হয়।
বিচারক মামলাকারীকে বলেন, ‘আপনাকে পিঁপড়ার অ্যাটর্নি হিসেবে ধরা হলো। কিন্তু এটাও স্পষ্ট এই মামলা করার সময় আপনি খুন হওয়া পিঁপড়ার মা-বাবার কাছ থেকে বৈধ অ্যাটর্নি চুক্তি সম্পন্ন করেননি।’

মামলাটি কেন চলতে পারবে না সে বিষয়ে ইঙ্গিত করে বিচারক বলেন, ‘এই ধরনের মামলা চলতে পারে না যদি বাদী উপস্থিত না থাকে বা তার একজন বৈধ অ্যাটনি না থাকে।’

অভিযোগকারীকে পিঁপড়ার মা-বাবার কাছ থেকে পাওয়া বৈধ কাগজপত্র দেখানোর দাবি করে বিচারক বলেন, ‘এরপর অভিযুক্তকে আদালতে ডাকার কথা ভাববেন তিনি।’

বিচারকের এই কথা শুনে হতবাক হয়ে আদালত প্রাঙ্গন ছেড়ে চলে যান মামলা দায়ের করা সেই সৌদি ভদ্রলোক।






মন্তব্য চালু নেই