মেইন ম্যেনু

স্কাইপ বা মোবাইলে অন্তরঙ্গ ভিডিও চ্যাটের পরিণতি দেখুন (ভিডিওসহ)

1466055671ক্যামেরা মোবাইল, স্কাইপ এবং হাই স্পিড ইন্টারনেটের মাধ্যমে যখন খুশি আপনার ভালোবাসার মানুষটিকে কাছে পেতে পারেন আপনি। লেন্সের ওপারের মানুষটি বহু দূরে থাকলেও এখনকার ডিজিটাল মাধ্যমের সাহায্যে সেই দূরত্ব শুধু কয়েক হাতের। ক্যামেরার মাধ্যমে আপনি মুখোমুখি চায়ের কাপ হাতে আড্ডা দিতেই পারেন বন্ধুর সঙ্গে।

কখনও বা একান্তে কথা বলতে বলতে ক্যামেরার লেন্সের বাধা পেরিয়ে প্রেমিকা প্রেমিকা হয়ে উঠতে চায় একে অপরের অন্তরঙ্গ। মুহূর্তের ভুলে ভাগ করে নেয় নিজের সবথেকে ব্যক্তিগত মুহূর্তকে। কিন্তু ওয়েব ক্যামেরার সামনে আপনার অবশ্যই উচিত কিছু বাধ্যবাধকতা মেনে চলা। আপনি হয়তো ভাবছেন, ঘরে একলা বসে আপনি যা কিছু করছেন বা বলছেন তা নিরাপদ। কিন্তু সবসময় তা নাও হতে পারে। অনেকভাবেই আপনার সেই গোপন ক্লিপ ছড়িয়ে পড়তে পারে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

প্রথমত, হ্যাকাররা কোনওভাবে এটি

হ্যাক করলে তা অনলাইনে ছড়িয়ে পড়তে পারে। কখনও বা আপনার প্রাক্তন প্রেমিক প্রেমিকাও ক্লিপিংস্ গুলি প্রকাশ করতে পারে সোশ্যাল মিডিয়ায়। অথবা কোনও প্রতারক ছল করে এই ভিডিওগুলির মাধ্যমে ব্ল্যাকমেল করতে পারে আপনাকে।এই ভিডিওগুলি প্রকাশ্যে এলে তখন অনেকেই লজ্জায় লোকসমাজে মুখ দেখাতে পারে না। বাঁচার জন্য বেশিরভাগ মানুষই বেছে নেয় মৃত্যুর পথ।

তাই, সাবধান। স্কাইপ বা এই ধরণের ক্যামেরা যতটা সম্ভব সচেতনভাবে ব্যবহার করুন। যেকোনও সময় এই ঘটনা আপনার সঙ্গেও ঘটতে পারে। বিশ্বস্ত কোনও ব্যক্তি হলেও সেক্ষেত্রেও সাবধান হয়েই কথা বলুন।

এই ভিডিওতেই দেখুন একটি মেয়ের প্রেমিকের সঙ্গে কথা বলার সময় কিছু ব্যক্তিগত মুহূর্ত কীভাবে সোশ্যাল নেটওয়ার্কে ছড়িয়ে পড়ে পরিনত হয়েছে দুঃস্বপ্নে।