মেইন ম্যেনু

স্কিন ইনফেকশনের শত্রু যেসব এসেনশিয়াল অয়েল

মিষ্টি ঘ্রাণের এসেনশিয়াল অয়েল শুধু আপনার মেজাজের উন্নতিতেই সাহায্য করেনা বরং ত্বকের ইনফেকশনের বিরুদ্ধেও যুদ্ধ করে। প্রতিটা ছোটখাট অসুখের জন্যই ডাক্তারের কাছে যাওয়া যেমন খরচের ব্যাপার তেমনি সময় ম্যানেজ করাটাও বেশ কঠিন। এছাড়াও ঔষধের থাকে বিভিন্ন রকমের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া। কিছু কিছু স্বাস্থ্য সমস্যা ডাক্তারের কাছে না গিয়েও ভালো করা যায়।

১। ল্যাভেন্ডার অয়েল

ল্যাভেন্ডার অয়েলে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিইনফ্লামেটরি উপাদান থাকে। তাই ত্বকের হুল ফোটা ও ফুসকুড়ি ভালো করে খুব কম সময়ে। ল্যাভেন্ডার অয়েল সরাসরি ত্বকে লাগানো যায়। এর সাথে অন্য কোন তেল মেশানোর প্রয়োজন হয়না। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, ল্যাভেন্ডার অয়েল গ্রাম পজিটিভ ও গ্রাম নেগেটিভ এই উভয় ধরণের ব্যাকটেরিয়াই ধ্বংস করতে অনেক বেশি কার্যকরী। স্কিন ইনফেকশন ভালো করা ছাড়াও ঘুমের উন্নতিতেও সাহায্য করে ল্যাভেন্ডার অয়েল।

২। টি ট্রি অয়েল

টি ট্রি অয়েল অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যান্টিফাংগাল উপাদান আছে। তাই রিং ওয়ার্ম ও ছত্রাকের ইনফেকশন মোকাবেলা করার জন্য ব্যবহার করুন টি ট্রি অয়েল। ব্রণ, উকুন ও স্কেবিসের সমস্যার ক্ষেত্রেও এই এসেনশিয়াল অয়েল কার্যকরী ভূমিকা রাখে। এছাড়াও ভেজাইনাল ইনফেকশন, হুল ফোটা, ফোঁড়া এবং দাঁতের ব্যথা নিরাময়েও অত্যন্ত উপকারী টি ট্রি অয়েল। টি ট্রি অয়েলের সাথে নারিকেল তেল মিশিয়ে ত্বকের আক্রান্ত স্থানে লাগান। ওয়েবমেড এর মতে টি ট্রি অয়েলের প্রাকৃতিক উপাদান ব্যাকটেরিয়া ও ছত্রাক ধ্বংস করতে সাহায্য করে।

৩। ক্যামোমিল অয়েল

সংবেদনশীল ত্বকের জন্য উপযুক্ত ক্যামোমিল অয়েল। এই তেল একজিমার বিরুদ্ধে কার্যকরী একটি তেল। ডায়াপার র‍্যাশ ভালো করার জন্য ক্যামোমিল অয়েল ব্যবহার করতে পারেন।

৪। লেমনগ্রাস অয়েল

লেমনগ্রাস অয়েলে অ্যান্টিফাংগাল উপাদান আছে। তাই এটি ফাংগাল ইনফেকশন ও অ্যাথলেট ফুট নিরাময়ে অত্যন্ত চমৎকার ভাবে কাজ করে। এতে এন্টিসেপ্টিক উপাদান ও থাকে বিধায় ক্ষত নিরাময় করতে পারে এবং সেপ্টিক হয়ে যাওয়া প্রতিরোধ করে।

৫। দারুচিনি তেল

চমৎকার সুগন্ধের পাশাপাশি দারুচিনি তেল ব্যবহারের আরো অনেক উপকারিতাও আছে। প্রাচীন মিশরিয়রা এই তেল ঔষধ হিসেবে ব্যবহার করতেন। ফেসিয়াল স্ক্রাব, মাউথওয়াশ এবং ইনসেক্ট রিপিলেন্ট হিসেবে ব্যবহার করা যায় সিনেমন লিফ অয়েল। Mercola র মতে শ্যাম্পুর সাথে দারুচিনি তেল ব্যবহার করলে উকুন দূর করতে সাহায্য করে।