মেইন ম্যেনু

স্টাফ নার্স নিয়োগ কোটা: মুক্তিযোদ্ধাদের নাতিপুতিও পাওয়া যাচ্ছে না!

প্রায় ১০ হাজার সিনিয়র স্টাফ নার্স নিয়োগ দেবে সরকার। এই নিয়োগের প্রক্রিয়াও ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। কিন্তু সমস্যা হলো সরকারি চাকরির বেলায় মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য যে কোটা সংরক্ষিত আছে, সে কোটায় লোক পাওয়া যাচ্ছে না। ফলে, কোটাটি খালিই থাকছে এবং এ কোটা পূরণও হচ্ছে না।

এ কারণে কোটা পূরণ করতে এবার কোটা শিথিলের একটি প্রস্তাবের অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ।

কোটা শিথিলের কারণ উল্লেখ করতে গিয়ে সোমবার সচিবালয়ে এক ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বললেন, যাদের জন্ম একাত্তর সালের পর, তারাই ক্যান্ডিডেট হচ্ছেন। মুক্তিযোদ্ধা প্রার্থী পাওয়া যাচ্ছে না। এমন কী তাদের সন্তান কিংবা নাতিপুতিও কাউকে পাওয়া যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, কোটা পূরণ না হওয়ায় পদ ফাঁকা থাকবে কেন! এ কারণেই ৯,৬১৬টি শূন্যপদ পূরণের জন্য এবার সংরক্ষিত কোটাপ্রথা শিথিল করা হয়েছে।

তিনি জানান, সিনিয়র স্টাফ নার্স পদে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে বিশেষ কোটার কোনও পদ যোগ্য প্রার্থীর অভাবে পূরণ করা সম্ভব না হলে সেসব পদ জাতীয় মেধা তালিকার শীর্ষে অবস্থানকারী প্রার্থীদের দিয়ে পূরণ করা হবে। এ কাজটি যাতে নির্বিঘ্নে করা যায়, সে জন্য বিশেষ/প্রাধিকার কোটার অপূরণকৃত পদ সংরক্ষণের বিষয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ২০১০ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি তারিখের ৫৯ নম্বর সার্কুলারের বিধান শিথিলকরণের প্রস্তাব সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

সচিব বলেন, ৯,৬১৬টি শূন্য পদ পূরণ হলে ভবিষ্যতে আবার কোটা শিথিলের জন্য নতুন করে মন্ত্রিসভার অনুমতি নিতে হবে। বর্তমানে ৩,৬১৬টি সিনিয়র স্টাফ নার্স পদে নিয়োগে মৌখিক পরীক্ষা চলছে। এখানে আবেদনকারীরাও এই সুযোগ পাবেন।