মেইন ম্যেনু

অন্তর্বাস পরে রাস্তায় শত শত নারী-পুরুষ

স্তন ব্যবহার করে পুলিশের ওপর হামলা, এক নারীর কারাদণ্ড!

স্তন ব্যবহার করে পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে সম্প্রতি এক নারীর কারাদণ্ড হওয়ার পর আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানিয়ে অন্তর্বাস পরে রাস্তায় নেমে আসেন শত শত নারী-পুরুষ। হংকংয়ের ওয়ান ছাই অঞ্চলের পুলিশ সদর দপ্তরের সামনে অন্তত ২০০ জন মানুষ ‘স্তন কোন অস্ত্র নয়’ স্লোগান দিতে থাকে।

A protester (R) wears a bra during a demonstration in support of Hong Kong female protester Ng Lai-ying, outside the police headquarters in Hong Kong, China August 2, 2015. Ng was sentenced to three and a half months in jail for using her breast to bump against police at an anti-parallel trading protest, local media reported. REUTERS/Tyrone Siu

এ বছরের মার্চে সীমান্ত ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার সময় ৩০ বছর বয়সী নেগ লাইয়িং-এর ওপর পুলিশ যৌন সন্ত্রাস চালান বলে অভিযোগ ওঠে। তখন নেগ স্তন দিয়ে ওই পুলিশ অফিসারকে পেছনের দিকে ঠেলতে থাকেন বলে উল্টো অভিযোগ করেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা। আর এই অপরাধেই নেগকে সাড়ে তিন মাসের কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। আর এই বিতর্কিত বিচারের বিপক্ষে রাজপথে নেমে বিক্ষোভ করতে থাকে মানুষজন।

Protesters wear bras over their shirts during a demonstration in support of Hong Kong female protester Ng Lai-ying, outside the police headquarters in Hong Kong, China August 2, 2015. Ng was sentenced to three and a half months in jail for using her breast to bump against police at an anti-parallel trading protest, local media reported. REUTERS/Tyrone Siu

আদালতে বিচারপতি মাইকেল চ্যান পিক-কিউ লা-ইয়াংয়ের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেন। তিনি তার উক্তিতে বলেন: “তুমি তোমার নারীত্বকে কাজে লাগিয়ে এই অভিযোগকে ঘোরানোর চেষ্টা করছো। এটি আইন বহির্ভূত কাজ।”

Protesters hold up bras during a demonstration in support of Hong Kong female protester Ng Lai-ying, outside the police headquarters in Hong Kong, China August 2, 2015. Ng was sentenced to three and a half months in jail for using her breast to bump against police at an anti-parallel trading protest, local media reported. REUTERS/Tyrone Siu

বিক্ষোভকারীদের মধ্যে থেকে লুক কিট-লিং নামের এক ব্যক্তি সাইথ চায়না মর্নিং পোস্টকে বলেন: “নারীর বিরুদ্ধে যৌন সন্ত্রাসের অভিযোগকে পাত্তা না দিয়ে তাকেই কারাদণ্ড দেওয়াটা অত্যন্ত জঘন্য একটি ঘটনা। এ সিদ্ধান্ত নারীদেরকে সকল প্রকার সামাজিক আন্দোলনে অংশগ্রহণে বাধা দেবে।”