মেইন ম্যেনু

স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়ে দুধ গোসল করলেন স্বামী

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে এবার স্ত্রীকে তালাক দিয়ে দুধ গোসল করেছেন এক ব্যক্তি। ওই ব্যক্তির নাম খোকন জমাদ্দার। ভূঞাপুর কেএইচ মোবাইল হাসপাতালের প্রোপাইটর খোকন জমাদ্দার উপজেলার গাবসারা ইউনিয়নের রামপুর গ্রামের হযরত জমাদ্দারের ছেলে।
দাম্পত্যে কলহ দেখা দেয়ায় গ্রাম্য সালিসে স্ত্রীকে ডিভোর্স দেন তিনি। এরপরই করেন এক অদ্ভুত কাণ্ড। কলসী ভর্তি দুধ নিয়ে এসে সবার সামনেই তিনি তা নিজের গায়ে ঢেলে দেন। তার এই দুধ গোসলের ভিডিও ও ছবি ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এর পর থেকেই এ ঘটনাটি এলাকায় আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে পরিণত হয়েছে।

সরজমিনে জানা যায়, গত বছরের ১৪ ফেব্রুয়ারি পারিবারিকভাবে একই গ্রামের সুমি আক্তারকে বিয়ে করেন তিনি। ছেলে ও মেয়ের পছন্দে বিয়ে হলেও সাংসারিক জীবনে প্রায়ই লেগে থাকতো কলহ। এরই ধারাবাহিকতায় গত ঈদ উল ফিতরের কয়েকদিন পরে পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝগড়া করে বাপের বাড়িতে চলে যান স্ত্রী সুমি আক্তার।

সম্প্রতি সুমি খোকনের পরিবারকে জানিয়ে দেয় যে তিনি আর খোকনের সঙ্গে সংসার করতে চান না। অবশেষে দুপক্ষের লোকজন নিয়ে শুক্রবার উপজেলার বামনহাটা গ্রামে গাবসারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনিরের উপস্থিতিতে এক সালিস বসে।

সালিসেও সুমির একই কথা, তিনি খোকনের সাথে সংসার করতে নারাজ। সালিসে সবার উপস্থিতিতে স্ত্রীকে দেনমোহর বাবদ ১ লাখ ১০ হাজার টাকা দিয়ে তালাক দেয় খোকন। পরে তিনি দুধ-গোসল কাণ্ড ঘটান। পরে নিজেই সেই ছবি ফেসবুকে আপলোড করেন। গাবসারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মনিরুজ্জামান মনির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, ইউপি নির্বাচনে হেরে ভূঞাপুর উপজেলার অলোয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী রহিজ উদ্দিন আকন্দ একইভাবে দুধ দিয়ে গোসল করে রাজনীতি ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই