মেইন ম্যেনু

স্ত্রীকে তালাক দিতে রাজি না হওয়ায় জামাইকে শিকলে বন্দী

স্ত্রীকে তালাক দিতে রাজি না হওয়ায় জামাইকে চারদিন শিকলে বেঁধে ঘরে বন্দী করে রাখে শ্বশুরবাড়ির লোকজন। পরে খবর পেয়ে ১৯ জুলাই মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাকে উদ্ধার করে পুলিশ।

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার বড়কালিয়ায় এ নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। জামাই রুবেলের বাড়ি গোপালগঞ্জ জেলার আড়পাড়া গ্রামে।

পুলিশ জানায়, কালিয়া উপজেলার বড়কালিয়ার সাহাদাৎ মোল্যার মেয়ে লাকির সঙ্গে ছয় মাস আগে গোপালগঞ্জ জেলার আড়পাড়া গ্রামের ভ্যানচালক রুবেলের বিয়ে হয়।

১৬ জুলাই শনিবার রুবেল স্ত্রীকে নিতে শ্বশুরালয়ে আসে। কিন্তু শ্বশুর-শাশুড়ি তার কাছ থেকে মেয়েকে তালাক নেয়ার চেষ্টা চালায়। চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে তাকে নির্যাতন করে পায়ে শিকল বেঁধে তালাবদ্ধ ঘরে আটকে রাখে।

খবর পেয়ে কালিয়া থানা পুলিশ জামাই রুবেলকে শ্বশুরবাড়ির বন্দিদশা থেকে উদ্ধার করে।

কালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আবদুল গনি মিয়া বলেন, মেয়েপক্ষের দাবিতে বিবাহবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত হয়েছে। পরে রুবেলকে তার অভিভাবকের কাছে হস্তান্তর করা হয়।