মেইন ম্যেনু

স্ত্রীর গয়না বন্ধক রেখে, ছাগল বেচে কী করলেন দিনমজুর? জানলে অবাক হবেন…

প্রকৃত স্বচ্ছ ভারত বোধহয় একেই বলে। আর তার প্রমাণ দিলেন রাজস্থানের এক আদিবাসী দিন মজুর।
কান্তিলাল রট নামে এই দিনমজুর রাজস্থানের দুঙ্গারপুর জেলার বাসিন্দা। বাড়িতে স্ত্রী, ছেলেমেয়ে, মা ছাড়াও ভাইয়ের বিধবা স্ত্রী থাকেন। গ্রামের কুঁড়ে ঘরে বাস করেন কান্তিলাল এবং তাঁর পরিবার।

এহেন কান্তিলালই নিজের পোষ্য ছাগল বেঁচে এবং স্ত্রীর সামান্য গয়না বন্ধক রেখে বাড়িতে শৌচালয় তৈরি করেছেন। কারণ তিনি নাকি স্থানীয় কিছু সমাজসেবীর মাধ্যমে স্বচ্ছ ভারত অভিযান সম্পর্কে জানতে পেরেছিলেন। আর তারপরেই স্বচ্ছ ভারত অভিযানে অনুপ্রাণিত হয়ে যে কোনও মূল্যে বাড়িতে শৌচালয় তৈরির সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

তাঁকে বলা হয়েছিল, বাড়িতে শৌচালয় তৈরি করলে কেন্দ্র, রাজ্য এবং স্থানীয় পুরসভার থেকে চার হাজার টাকা করে মোট ১২ হাজার টাকা পাবেন তিনি। এই প্রস্তাবেই রাজি হন কান্তিলাল। শৌচালয় তৈরির জন্য শ্রমিকদের পারিশ্রমিক দিতে নিজের পাঁচটি ছাগলের একটি তিনি ৫ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রি করে দেন।

এছাড়া নিজের স্ত্রীর রূপোর গয়নাও বন্ধক রাখেন তিনি। এর পরে বিষয়টি জানতে পেরেই স্থানীয় পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান ওই দিনমজুরের বাড়ি গিয়ে তাঁর হাতে পুরসভার তরফে প্রাপ্য ৪ হাজার টাকা তুলে দেন, যাতে ওই দিনমজুর নিজের স্ত্রীর বন্ধক রাখা গয়না ছাড়িয়ে আনতে পারেন।