মেইন ম্যেনু

স্ত্রীর দাঁতভাঙা প্রশ্নের উত্তর স্বামী এত সহজ আর সুন্দর ভাবে দিলেন ভাবতেই পারবেন না!

স্ত্রীঃ আজকে তোমাকে আমার কিছু প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে।
.
স্বামীঃ বল?
.
স্ত্রীঃ তুমি এত তোমার বৃদ্ধা মা কে নিয়ে ভাবো কেন? আমাদের কি কোন ভবিষ্যৎ নাই? আমাদের ছেলে মেয়ের কোন চিন্তা করবা না?
.
স্বামীঃ আমি ঘরের বড় ছেলে আমার দায়িত্ব। আর তাছাড়া বাবা মা আমাকে অনেক কষ্টে মানুষ করেছে আমি তাকে নিয়ে না ভাবলে কে ভাববে??
.
স্ত্রীঃ তোমার তো আর ভাই আছে তারা দেখবে?
.
স্বামীঃ তাদের স্ত্রীরাও যদি এমন বলে তো আমদের বৃদ্ধা মাকে কে দেখবে??
.
স্ত্রীঃ আমি এত কিছু জানি না আমি পারব না তার খাটনি খাটতে! আর
তোমাকেও দিব না তার পিছনে এতটাকা খরচ করতে!!
.
স্বামীঃ আজ থেকে আমি আমার মায়ের পায়ের নিচে ঘুমাবো। তোমার পাশে ঘুমানোর চেয়ে মায়ের পায়ের নিচে
ঘুমানো হাজার গুন শান্তি।
.
স্ত্রীঃ রাগানিত্ব হয়ে! আজ বুঝলাম তুমি আমাকে একটু ও ভালোবাস না!! তোমার সাথে আর সংসার করা যাবে না!! আচ্ছা একটা কথার উত্তর দাও তুমি আমাকে না তোমার মাকে বেশি ভালোবাসো??
.
স্বামীঃ দুজনকে আমার জীবনের চেয়ে বেশি ভালোবাসি।
.
স্ত্রীঃ কাকে বেশি? ধর আমি আর তোমার মা একটা বিপদে পরেছি! যে কেউ একজন কে বাঁচাতে পারবে তুমি কাকে বাঁচাবে??
.
স্বামীঃ আমার মাকে বাঁচিয়ে তোমাকে জড়িয়ে ধরে তোমার সাথে মরে যাব।
.
স্ত্রী তার ভুল বুঝতে পেরে কাঁদতে শুরু করে দেয়।
.
স্বামীঃ এবার আমি তোমাকে কিছু কথা বলব মনোযোগ দিয়ে শুনো। ধর আমি আর তুমি মাথার ঘাম পায়ে ফেলে আমাদের ছেলেদের মানুষ করলাম। আমি মারা গেলাম তুমি বৃদ্ধ হয়ে গেলে তখন আমাদের ছেলেদের স্ত্রী এসে যদি বলে এই কথা গুলো আর আমাদের ছেলে যদি তার স্ত্রীর কথা শশুনে তোমাকে দেখা শোনা না করে বৃদ্ধা শ্রমে দিয়ে আসে তখন তোমার কতটা কষ্ট লাগবে?
.
স্ত্রীঃ ওগো আমাকে ক্ষমা করে দাও। আমি যে একজন মা আমাকে যে একদিন বৃদ্ধ হতে হবে আমি সেই কথা ভুলেই গেছি। আমি আজ থেকে তোমার মাকে নিজের মা, আমার জীবনের চেয়েও বেশি ভালোবাসব।
.
বি:দ্রঃ মেয়েদের বলছি আপনে যে একজনের স্ত্রী হয়ে এসে বলেন তার মা-বাবা কে ভুলে যেতে? আপনার ভাইয়ের ও কিন্তু স্ত্রী আসবে তারা যদি এসে আপনার ভাইদের বলে আপনার মা-বাবা কে ভুলে যেতে তখন আপনার কেমন লাগবে?? আপনেও একদিন বৃদ্ধ হবেন…
.
এই সিম্পল ক্যালকুলেশন টা ভুলে যান কেন?