মেইন ম্যেনু

স্ত্রীর নগ্ন ছবি দেখে অকল্পনীয় জবাব স্বামীর!

সব স্ত্রীই চান স্বামীকে আদরে, বিস্ময়ে অভিভূত করে তুলতে। তেমনি নিজের নগ্ন ফটোশুট করে স্বামীকে সারপ্রাইজ দিতে মধ্যবয়সী এক নারী হাজির হয়েছিলেন বিশ্বের ডাকসাইটে চিত্রশিল্পী ভিক্টোরিয়া ক্যারোলিন বুদওয়ার কাছে।

ভিক্টোরিয়া স্যান আন্তোনিওর এক বিলাসবহুল হোটেলের কক্ষে সেই ফটোশুট করলেন। এরপর নিজের সেই ছবিগুলো দেখে ভিক্টোরিয়ার কাছে আবেদন জানালেন সেই নারী- ভিক্টোরিয়া যেন এমনভাবেই ছবিগুলো এডিট করেন যাতে তার ত্বকের দাগ দেখা না যায়!

সেভাবেই এডিটিং শেষ করেন ভিক্টোরিয়া। ছবিগুলো তুলে দেন ওই নারীর হাতে। তিনি সেগুলো পাঠিয়েও দেন স্বামীকে। কিন্তু ছবিগুলো দেখার পরে একটি চিঠিতে ভিক্টোরিয়াকে যে প্রত্যুত্তর দিলেন স্বামীটি, তা কেউই চিন্তা করতে পারেননি! সম্প্রতি সেই চিঠিটি নিজের ফেসবুকে পোস্টও করেছেন ভিক্টোরিয়া।

স্বামীটি লিখেছেন, ছবিগুলো দেখে তার মনে হচ্ছে- এতগুলো বছরেও তিনি সঠিক ভাবে তার স্ত্রীকে ভালবাসার কথা জানিয়ে উঠতে পারেননি। পারলে স্ত্রীর তার চোখে এভাবে মোহময়ী হয়ে ওঠার প্রয়োজন পড়ত না। ভিক্টোরিয়াকে দোষারোপ না করেই লিখেছেন তিনি- “আপনি আমার স্ত্রীর স্ট্রেচ মার্কগুলো এডিট করে মুছে দিয়েছেন, তাতে আমাদের সন্তান জন্মের প্রমাণও মুছে গিয়েছে। আপনি আমার স্ত্রীর ত্বকের ভাঁজ মুছে দিয়েছেন, সেই সঙ্গে মুছে গিয়েছে এতগুলো বছরে আমাদের হাসি-কান্নার ইতিহাস। আপনি আমার স্ত্রী শরীরের পোড়ার দাগ মুছে দিয়েছেন। সেইসঙ্গে মুছে গিয়েছে তার রান্না করা এবং আমাদের একসঙ্গে খাওয়ার স্মৃতিও!”

চিঠিটি চাইলে পুরোটা পড়ে দেখতে পারেন! অবাক হয়ে যাবেন স্ত্রীর প্রতি স্বামীর এই ভালবাসা দেখে! অবাক ভিক্টোরিয়াও হয়েছেন। কিন্তু তার চেয়েও বেশি করে তিনি লজ্জা পেয়েছেন! এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি তো তিনি কখনই হননি! সবাই বরং তাঁর ছবির প্রশংসাই করে থাকেন! এবারেই উল্টোটা ঘটল!