মেইন ম্যেনু

স্ত্রীর লাশ কাঁধে ১০ কিলোমিটার : পেলেন ৯ লাখ রুপি

স্ত্রীর লাশ কাঁধে নিয়ে ১০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দেওয়ায় সেদিন গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছিলেন তিনি। সেই তিনি আবার শিরোনাম হলেন প্রায় ৯ লাখ রুপির চেক হাতে নিয়ে।

ভারতের ওডিশা রাজ্যের কালাহান্দি জেলার সেই আদিবাসী কৃষক দানা মাঝি পেয়েছেন বাহরাইনের রাজা প্রিন্স খলিফা বিন সালমান আল-খলিফার প্রতিশ্রুত অর্থসহায়তা। বাহরাইনের রাজার দেওয়া ৮ লাখ ৯০ হাজার রুপির চেক পৌঁছেছে তার হাতে।

অর্থের অভাবে অ্যাম্বুলেন্স বা ভাড়া গাড়ি জোগাড় করতে ব্যর্থ হয়ে নিজের স্ত্রীর লাশ কাঁধে নিয়ে ১০ কিলোমিটার হেঁটে বাড়ি এসেছিলেন দানা মাঝি। ঘটনাটি ভারতীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে উঠে আসে। বিষয়টি চোখে পড়ে বাহরাইনের রাজার। তিনি ইচ্ছা প্রকাশ করেন, নিদারুণ অর্থাভাবে থাকা ওডিশার দানা মাঝিকে সাহায্য করবেন। ভারতীয় দূতাবাসের মাধ্যমে প্রতিশ্রুত সেই সাহায্য তার কাছে পৌঁছে দিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার দানা মাঝি ভারতের নয়াদিল্লিতে বাহরাইন দূতাবাসে গিয়ে রাজার দেওয়া চেক গ্রহণ করেন। জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘নিজেকে সুখী মনে হচ্ছে। আমার তিন মেয়ের শিক্ষার জন্য এই অর্থ আমি ব্যাংকে রাখব। আশা করি, ওরা ভালো শিক্ষা ও কাজ পাবে।’

কালাহান্দি জেলার ভবানিপাটনায় একটি হাসপাতালে ২৪ আগস্ট মারা যান দানা মাঝির স্ত্রী আমাংদেই। মরদেহ বাড়ি নেওয়ার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে সাহায্য চাইলে তারা কোনো প্রকার সাহায্য না করে দ্রুত লাশ সরিয়ে নিতে বলে। নিরুপায় হয়ে স্ত্রীর লাশ কাঁধে নিয়ে ১০ কিলোমিটার হেঁটে মেলগড় গ্রামে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন দানা মাঝি।

এ ঘটনার পর ভারতীয় স্বাস্থ্যসেবা ও পরিষেবা নিয়ে নানা প্রশ্ন ওঠে। অনেকে এগিয়ে আসেন দানা মাঝির সাহায্যে। বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংস্থার পক্ষ থেকে সহায়তা পেয়েছেন তিনি। এবার পেলেন বাহরাইনের রাজার আনুকূল্য।

তথ্যসূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস অনলাইন।