মেইন ম্যেনু

স্ত্রীর ‘সতীত্ব’ নিয়ে স্বামীর যত মাথা ব্যথা

আমরা, ছেলেরা, মুখে যতই বারফট্টাই করি, নিজেকে ‘উদারমনা’ বলে উপস্থাপনের চেষ্টা করি, এক জায়গায় এসে খচখচানি কাটিয়ে উঠতে পারি না। নিজেরা বিয়ের আগে কী করেছি, কয়টা মেয়ের সঙ্গে ঘুরেছি, শুয়েছি, ক’টা গার্লফ্রেন্ড ছিল, এসব নিয়ে আমাদের মাথাব্যথা নেই। কিন্তু, যাকে বিয়ে করছি বা বিয়ে করেছি, সে অতীতে কী করেছে, ক’টা বয়ফ্রেন্ড ছিল, তা জানার জন্য আকুপাকু করি। বয়ফ্রেন্ড নিয়ে যতটা না মাথাব্যথা, তার চেয়েও বেশি মাথাব্যথা স্ত্রী বা বান্ধবীর ‘সতীত্ব’ নিয়ে। মেয়েদের এই সতীত্বের পরীক্ষায় বসা নতুন কিছু নয়।

আবহমান কাল ধরে চলে আসছে। স্বর্ণলঙ্কা থেকে ফিরে জনককন্যা সীতাকে যে পরীক্ষায় বসতে হয়েছে, আজ, এই অ্যাপ নির্ভর যুগেও মেয়েদের একই জিনিস ফেস করতে হয়। অপ্রিয় হলেও সত্য, সময় বদলালেও মনের সংকীর্ণতা কাটিয়ে উঠতে পারেনি পুরুষকুল।

এ নিয়ে তর্ক জুড়লে, তা থামবে না। ‘সতীত্ব’ নিয়ে বানানো এই ভিডিয়োটি দেখলে, অনেক পুরুষই তার স্বরূপ, সত্তাকে নতুন করে চিনতে পারবেন। এ দেখুন কী ভাবে, কোন প্রেক্ষিতে স্বামীকে ‘সতীত্ব’ বোঝালেন স্ত্রী। স্বামী-স্ত্রীর খুব স্বাভাবিক কথোপকথন। তার মধ্য দিয়েই স্বামীকে যা শেখানোর বা বোঝানোর বুঝিয়ে দিয়েছেন বুদ্ধিমতী স্ত্রী।



« (পূর্বের সংবাদ)